সঙ্কর্ষণ বন্দ্যোপাধ্যায়: • ধারাবাহিক ‘‌বেপনহা প্যায়ার’‌-‌এ আপনার অভিনীত চরিত্রটা কেমন?‌
•• এই ধারাবাহিকে আমার চরিত্রের নাম প্রগতি। প্রগতি যেমন আধুনিক তেমনি নিজের কাজের প্রতি যত্নশীল। সদ্য কলেজ পাশ করে বেরিয়েছে। কনফিডেন্স লেভেল অনেক উঁচুতে। আমার সবসময়ে সাসপেন্স ভাল লাগে। এই ধারাবাহিকেও একটা রহস্যের ছোঁয়া আছে। আমার মনে হয় দর্শকের ভাল লাগবে এই চরিত্র।
• ‘‌দৃশ্যম’‌ ছবিতে আপনার অভিনয় দর্শকের ভাল লেগেছিল। তারপর ধারাবাহিকে এলেন কেন?‌
•• প্রথমত এই ধারাবাহিক একতা কাপুরের বালাজি টেলিফিল্মসের। আর দ্বিতীয় কারণ এই ধারাবাহিকের গল্প এবং চরিত্র। এটা একটা ভালবাসার গল্প কিন্তু একটু থ্রিলারের ছোঁয়া আছে।
• আপনার রিয়্যাল লাইফে এই বেপনহা প্যায়ারের অস্তিত্ব আছে?‌
•• বাস্তব জীবনে তো বাবা-‌মা-‌র মতো ভালবাসা কেউ দিতে পারে না। তবে আমার আর একটা ভালবাসা আছে। সেটা আমার পোষ্য ১২ বছরের কুকুর হ্যাপি।
• আপনার স্বামী বৎসল শেঠও অভিনেতা। কোনও ইগো সমস্যা হয় না?‌
•• এই তো সবেমাত্র বছর দেড়েক আমাদের বিয়ে হয়েছে। তার আগে সাত-‌আট মাস ধরে আমাদের পরিচয়। আমাদের দুজনের মধ্যে অনেক মিল। আর আমরা দুজনেই যথেষ্ট ম্যাচিওরড। আমরা সব বিষয়ে খোলাখুলি আলোচনা করি। কাজেই আমাদের কোনও ইগো সমস্যা নেই।
• আপনি তো বাঙালি। বিয়ে হয়েছে গুজরাটি পরিবারে। খাওয়া দাওয়া কীরকম?‌ অভ্যস্ত হয়েছেন?‌
•• আমি বাঙালি হলেও কিন্তু মাছ, মাংস খাই না। কাজেই একটা মিল আছেই। মুসুরডাল আর আলুপোস্ত হলেই আমার চলে যায়। বাড়িতে অবশ্য দুধরণের রান্নাই হয়। তবে বৎসল ইদানীং আলুপোস্তর ভক্ত হতে শুরু করেছে।
• বড়পর্দায় কিন্তু আপনাকে দেখা যাচ্ছে না। কী বলবেন?‌
•• এই তো দুটো ছবিতে অভিনয় করলাম। অশ্বিনী চৌধুরির পরিচালনায় ‘‌সেট্টার’‌ আর ‘‌ব্ল্যাঙ্ক’‌। অবশ্য কোনওটাই এখনও রিলিজ করেনি। ‘‌সেট্টার’-‌এ আমার সঙ্গে অভিনয় করেছেন শ্রেয়াস তালপোড়ে আর ‘‌ব্ল্যাঙ্ক’‌ ছবিতে আমার সঙ্গে আছেন সানি দেওল।
• আপনি বাঙালি। কাজেই বাংলা ছবিতে কাজ করতে ইচ্ছা হয় না?‌
•• সে তো থাকবেই। তবে যোগাযোগটা ঠিক মতো হচ্ছে না। একবার তো কলকাতায় গিয়েওছিলাম কিছু পরিচালকের সঙ্গে কথা বলতে। একজন পরিচালকের কাছ থেকে প্রস্তাবও পেয়েছিলাম। কিন্তু সেই সময়ই ‘‌বেপনহা প্যায়ারের’‌ কাজ এসে গেল। ফলে ইচ্ছে থাকলেও বাংলা ছবিতে কাজ করা হল না।‌

ছবি:‌ সঙ্কর্ষণ বন্দ্যোপাধ্যায় ‌

জনপ্রিয়

Back To Top