আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বন্যপ্রাণ সংরক্ষণে আরও কঠোর হোক সরকার। জঙ্গল পার্শ্ববর্তী এলাকায় বন্যপ্রাণীর সঙ্গে যাঁরা বসবাস করেন, তাঁদের আরও বেশি সচেতন করে তোলা প্রশাসনের কর্তব্য। মনে করিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভরেকর ও কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নকে খোলা চিঠি লিখলেন বাংলার তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। কেরলের পালাক্কর জেলায় গর্ভবতী হাতির মৃত্যুর ঘটনায় শোকাহত তিনি। বিষয়টি আরও গুরুত্ব দিয়ে দেখার আবেদন জানিয়ে চিঠিতে মিমি লেখেন, ‘‌আর চার পাঁচজন মানুষের মতোই আমিও এই ঘটনায় শোকাহত। আনারস এর মধ্যে বিস্ফোরক ঢুকিয়ে দিয়ে একটি গর্ভবতী হাতিকে হত্যার ঘটনা একজন ভারতবাসী হিসাবে ও একজন পশুপ্রেমী হিসাবে আমার মাথা হেঁট করে দিয়েছে। শুধুমাত্র এই ঘটনায় নয়, ওই জেলায় সব সময় এই ধরনের ঘটনা ঘটেই থাকে। কেবল হাতি না, রাস্তার কুকুর, বিড়ালদেরও নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। বন্য প্রাণীদের রক্ষা করা প্রত্যেকটা মানুষের কর্তব্য, এরই সঙ্গে রাজ্য সরকারের উচিত সেখানকার পুলিশ ও বন দপ্তরের কর্মীদের সঙ্গে মিলিতভাবে চাষী ও গ্রামবাসীদের মধ্যে সচেতনতার বার্তা পৌঁছে দেওয়া। পালাক্কর জেলার মানুষ নিজেদের ফসল রক্ষার্থে বন্যপ্রাণীদের খাদ্যের মধ্যে অনেকদিন ধরেই বিস্ফোরক মিশিয়ে তাদের দূরে রাখার চেষ্টা করে, তাই তাদের কাছে বিষয়টা খুব একটা বেদনাদায়ক নয়। কিন্তু কেরল সরকারের উচিত সবার আগে সঠিক ভাবে চাষের জমি এবং বনাঞ্চলের মধ্যে পোক্ত বেড়া বা জালের ব্যবস্থা করা, তাতে করে এই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না।’‌
 

জনপ্রিয়

Back To Top