আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ করোনা আতঙ্কে ত্রস্ত বিশ্ব। এরই মাঝে করোনার সংক্রমণ নিয়ে লখনউয়ের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার অভিযোগ ওঠে বলিউডের গায়িকা কণিকা কাপুরের বিরুদ্ধে। তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে উত্তরপ্রদেশের সরোজিনী নগর থানার পুলিশ। একটি মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে যেখানে ভয়ে কাঁটা গোটা বিশ্ব সেখানে এই সংক্রমণ নিয়ে অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ায় গায়িকার দায়িত্ববোধ নিয়ে প্রশ্ন ওঠে সকলের মধ্যে।
করোনার আতঙ্কে ভীত সকলেই। সামান্য জ্বর, সর্দি, কাশির মত উপসর্গ দেখা দিলেই যে মানুষ ডাক্তারের কাছে ছুটছেন সেই নজিরও কম নয়। সেখানে বলিউডের বিখ্যাত গায়িকা কণিকা কাপুরের বিরুদ্ধে নোভেল করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে একটি অনুষ্ঠানে হাজির থাকার অভিযোগ ওঠে। ফলে তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি ২৬৯, ২৭০ ও ১৮৮ ধারায় মামলা রুজু করেছে উত্তরপ্রদেশের সরোজিনী নগর থানার পুলিশ। পুলিশের কাছে কণিকা কাপুরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন লখনউয়ের এক স্বাস্থ্য আধিকারিক। জানা যায়, কণিকা কাপুরের এই অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন বিজেপি নেত্রী বসুন্ধরা রাজে ও তাঁর সাংসদ পুত্র দুষ্মন্ত সিং। তবে সচেতনতার স্বার্থে তাঁরা অবশ্য নিজেদের সেল্‌ফ কোয়ারেন্টাইনে রেখেছেন।
তবে সমস্যার বিষয় হল, দুষ্মন্ত সিং এরই মাঝে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন-সহ অনেকের সঙ্গেই সাক্ষাৎ করেন। ফলে কণিকা কাপুরের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়ার পর থেকে নিজেদের গৃহবন্দি করে হোম কোয়ারেন্টিনে চলে গিয়েছেন সকলেই। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ নিজের সমস্ত কাজ বাতিল করে দিয়েছেন। বাকি রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা যাঁরা সেদিনের অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন, এমনকি পরে দুষ্মন্তের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তাঁরাও আতঙ্কে সেলফ কোয়ারেন্টাইনের পথ বেছে নিয়েছেন। এরই মাঝে সকলকে আশ্বস্ত করতে টুইট করেন বসুন্ধরা রাজে জানান, ‘‌সেদিনের অনুষ্ঠানের পর আমরা সকলেই কোয়ারেন্টিনে রয়েছি। তবে আমাদের শরীরে এখনও কোনও উপসর্গ দেখা যায়নি।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top