আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বিশ্বমানের ছবি। কথাটা বললেই যে বাঙালিদের কথা মনে পড়ে, তাঁদের বেশিরভাই গত হয়েছেন। নতুন করে বিদেশ খ্যাত উৎসব মাত করে দেওয়া বাংলা ছবি প্রায় নেই বললেই চলে। কিন্তু কেন খরা?‌ সম্ভবত নির্মাণ কৌশল ও বিষয়বস্তুতে কোথাও গিয়ে খামতি থেকে যাচ্ছে। তাই আলিয়া দু ফ্রঁসতে ৫ থেকে ১১ জানুয়ারি পর্যন্ত আয়োজিত হতে চলেছে আর্ট হাউজ ছবির কর্মশালা। দীর্ঘদিন ধরে ‘‌Produire AU SUD’ নামে এই ইউরোপীয় সংস্থা‌ এই ধরণের কাজ করে চলেছেন। ‘‌Kolkata Lab‌’ তারই অংশ‌। সেখানে আসছেন আটজন বিদেশী বিশেষজ্ঞ। আয়োজকদের দাবি, দীর্ঘদিন ধরে তাঁরা বিশ্বের সিনেমা জগতের নানা প্রান্তে ঘুরে দেখেছেন, ভারতীয় ছবি আর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের মূল ধারার ছবির তালিকায় জায়গা পায় না। মনে করা হচ্ছে, ছবি তৈরিতে নানারকম গোলমাল থাকে। তাই ছবি তৈরির মূল ধাপ, চিত্রনাট্যকেই প্রতিযোগিতার উপযোগী করে তোলার চেষ্টা করা হবে এখানকার ওয়ার্কশপে। দক্ষিণ–পূর্ব এশিয়া থেকে সাতটি ছবির চিত্রনাট্য চূড়ান্ত ধাপের জন্য তাই নির্বাচন করে নিয়েছেন আয়োজকরা। তারপর ছবি তৈরির কারখানা থেকে এই চিত্রনাট্য নির্মাতাদের হাতে পৌঁছবে। সেখানে তৈরি হবে ছবিটি। শুধু চিত্রনাট্য নয়, এখানে থাকবে প্রযোজনার কৌশলও। এই ধরণের ওয়ার্কশপ কলকাতায় প্রথম। উল্লেখ্য, এখানে মাস্টার ক্লাস নিতে হাজির থাকবেন বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত। তাই অভিনব উদ্যোগ নজর কেড়েছে সকলেরই। 
শুধু এই কর্মশালাই নয়, এখানে চলচ্চিত্র উৎসবেরও আয়োজন করা হয়েছে। বসুশ্রী সিনেমায় প্রায় ৮০টি ছবি দেখানো হবে। তথ্যচিত্র, স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি, পূর্ণ দৈর্ঘ্যের ছবি সহ একাধিক ভাগে এখানে চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। ছবির শেষে সেরা ছবিগুলিকে পুরস্কৃতও করা হবে। বিচারকদের মধ্যে রয়েছেন বিখ্যাত চলচ্চিত্র সমালোচক রাজীব মসন্দ, জেরম ব্যারন, রোকেয়া প্রাচী। এই গোটা কর্মকাণ্ডে কাজ করছে বিশাল বড় একটা দল। এর পুরোটার নামই ‘‌আর্ট হাউজ এশিয়া ফিল্ম ফেস্টিভাল।’‌ বাংলার চলচ্চিত্র পরিচালক থেকে, সমালোচক, অধ্যাপক, সকলেই জড়িয়ে আছেন এর সঙ্গে। এই উৎসবের নেতৃত্ব দিচ্ছেন শপথ দাস। 

জনপ্রিয়

Back To Top