আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সেই ১৯৭৩ সাল থেকে দু’‌জনের সম্পর্ক। অমিতাভ তখন সদ্য বলিউডে পা রাখা তরুণ। সরোজ এক জন স্বনামধন্য নৃত্যপরিচালকের সহকারী। ছবির নাম ‘‌বাঁধে হাত’‌। অমিতাভের বিপরীতে সেই সময়েই তারকা মুমতাজ। ছবির একটি গানে অনেকের সঙ্গে পা মিলিয়েছিলেন সরোজও। এখনও বিগ বি মনে করতে পারেন ‘‌মাস্টারজি’‌র সেই সাবলীল নাচ। অনেকের মধ্যেও নজর কাড়ত বারবার। 
তার পর সহকারী থেকে ধীরে ধীরে ডান্স ডিরেক্টর। বিগবির কথায়, ‘‌ভাষা পরিবর্তন হয়ে এখন যাঁকে বলে কোরিওগ্রাফার, তাই হতে দেখেছি সরোজজিকে’‌। অমিতাভই জানালেন, নাচ ভাল লাগলে শটের শেষে অভিনেতাকে ডেকে পুরস্কার হিসেবে একটা কয়েন দিতেন সরোজ। এটা ছিল ‘‌শাগুন’‌। এই কয়েন থেকে বঞ্চিত হননি অমিতাভও। সরোজের মৃত্যুতে আজ সেই কথাই তুলে ধরলেন। জানালেন, ‘‌ডন’‌ ছবিতে ‘‌খাইকে পান বনারসওয়ালা’‌ দেখে কীভাবে প্রশংসা করেছিলেন সরোজ। বলেছিলেন, শুধু ওই গানটা দেখার জন্য হলরক্ষীকে অনুরোধ করে বারবার ভিতরে যেতেন। আবার গান শেষ হলে বেরিয়ে আসতেন। অমিতাভের কথায়, ‘‌আপনিই আমাদের গানের কথাগুলোকে নাচে পরিণত করতে শিখিয়েছিলেন’‌। 
সরোজর হাত ধরেই বলিউডের ‘‌ধক ধক গার্ল’‌ ‌হয়ে উঠেছিলেন তিনি। সেই মাধুরী দীক্ষিত আজ বাকরুদ্ধ। এদিন সরালে টুইটারে লিখলেন, ‘‌আমার নাচের সমস্ত কৃতিত্ব সরোজজির। এক দো তিন নাচ আর মোহিনী লোকের মনে গেঁথে গেছে ওঁর জন্যই। আমি খারাপ রয়েছি। কী ভাষায় ওঁর পরিবারকে সমবেদনা জানাব!’ ‘‌তেজাব’‌–এর এক দো তিন গান থেকে শুরু হয়েছিল রসায়ন। তার পর ‘‌ধক ধক করনে লাগা’‌, ‘‌তাম্মা তাম্মা লোগে’‌, ‘খলনায়ক’ ছবির ‘চোলি কে পিছে ক্যয়া হ্যায়’, ‘‌রাজা’ ছবির‌ ‘আঁখিয়া মিলাউ কভি আঁখিয়া চুরাউঁ’, ‘দেবদাস’-এর ‘ডোলা রে ডোলা’। একের পর এক ইতিহাস রচে গেছেন দু’‌জন। মাধুরী তাঁর কাছে কী, সেকথা নিজেই একটা সাক্ষাৎকারে জানিয়েছিলেন সরোজ। বলেছিলেন, ‘‌ওঁর মতো এত সম্মান আমি কারও থেকে পাইনি। তেমনই ওঁর মতো নিষ্ঠা, পরিশ্রমের ক্ষমতাও আর কারও ছিল না।’‌ শোনা যায় মাধুরীর জন্য এককালে শ্রীদেবীর সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয়েছিল তাঁর। শ্রীদেবীর অভিযোগ ছিল, তিনি বেছে বেছে ভালো স্টেপ মাধুরীকেই শেখাতেন। সেসব আজ অতীত। মাধুরী এখন ‘‌গুরুজি’‌–কে হারিয়ে বিধ্বস্ত। 
 অনুপম খের লিখলেন, ‘‌সরোজজি প্রথম শিখিয়েছিলেন, নাচ শুধুই শরীরের বিভঙ্গ নয়। তাতে আত্মা আর মনের সংযোগও থাকে।’‌ এর পর একে একে শোক প্রকাশ করেছেন রেমো ডি’সুজা, অনুপম খের, মনীষা কৈরালা, মনোজ বাজপেয়ী, রীতেশ দেশমুখ, তাপসী পান্নু, সুনীল গ্রোভার, নীল নীতীন মুকেশ, কুণাল কোহলি, হনশল মেহতা, অহনা কুমরা, অক্ষয় কুমাররা। 
বৃহস্পতিবার মাঝরাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে চলে গেলেন সরোজ খান। বলিউডের ‘‌মাস্টারজি’‌। মুম্বইয়ের মালাডে মুসলিম কবরস্থানে শেষকৃত্য সম্পন্ন হল তাঁর। 

জনপ্রিয়

Back To Top