আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যু কী দুর্ঘটনাবশত?‌ নাকি এই মৃত্যুর পেছনে রয়েছে কোনও কঠিন সত্য?‌ এতদিন বাদে এই প্রশ্নই উঠতে শুরু করেছে। কারণ সংশোধনাগারের ডিজিপি ঋষিরাজ সিং অভিনেত্রীর মৃত্যু নিয়ে নতুন করে বিতর্ক উসকে দিয়েছেন। তিনি এই মৃ্ত্যুকে দুর্ঘটনা বলে মেনে নিতে নারাজ। উলটে এটা খুন বলেই তাঁর দাবি। 
কেন এমন দাবি করলেন ঋষিরাজ?‌ তিনি বলেন, ‘‌আমার বন্ধু তথা প্রয়াত ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ ডঃ উমাধাথন অনেক দিন আগে আমাকে জানিয়েছিল অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যুর নেপথ্যে খুন হয়ে থাকতেই পারে। কিন্তু এটা কখনই দুর্ঘটনাবশত মৃত্যু নয়ই। এটা তখনই সে আমায় বলেছিল যখন কৌতুহলবশত আমি তাঁকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম।’‌ এই মন্তব্যের পরই গোটা বলিউডে এখন হইচই পড়ে গিয়েছে। 
যদিও দুবাইয়ে এক পারিবারিক বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়ে হোটেলের মধ্যেই দুর্ঘটনাবশত ডুবে গিয়ে শ্রীদেবীর মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্টেও সেকথাই উল্লেখ করা হয়েছে। ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে মৃত্যু হয় শ্রীদেবীর। এতদিন পর এই দাবি তিনি কেন করলেন তা নিয়েও ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। অভিনেত্রীর মৃত্যুর পর অবশ্য নতুন করে তদন্তের দাবিতেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন এক পরিচালকও। তাঁর আচমকা মৃত্যুর খবরে থমকে গিয়েছিল গোটা দেশ।
কেরলের এক সংবাদপত্রে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ডিজিপি ঋষিরাজ সিং দাবি করেছেন, তাঁর বন্ধু ডঃ উমাধাথন তাঁকে এও বলেছেন, একজন মানুষ যতই মদ্যপ থাকুক না কেন এক হাঁটু জলে ডুবে যাবে না।সে তখনই ডুবে যাবে যখন তাঁর পা ধরে টানা হবে এবং মাথা জলে চুবিয়ে রাখা হবে। এই মন্তব্যের পর থেকেই অভিনেত্রী শ্রীদেবীর মৃত্যু নিয়ে নয়া বিতর্ক তৈরি হল। 

জনপ্রিয়

Back To Top