আজকালের প্রতিবেদন: ভালবাসার উপহার।
করোনা–ত্রাণে সমাজের সব স্তরের মানুষ এগিয়ে এসেছেন। তাঁরা নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী অর্থ, খাবার তুলে দিয়েছেন প্রান্তিক মানুষদের জন্য। ওই সাহায্যকারী মানুষদের উপহার তুলে দেবেন এক সিনেমা–পড়ুয়া। লেখাপড়ার বাইরে যিনি ডুবে থাকেন ছবি আঁকা নিয়ে। ওই সাহায্যকারী মানুষদের নিজের আঁকা ছবিই উপহার হিসেবে তুলে দেবেন শর্মিষ্ঠা চক্রবর্তী।
‘‌আমি আর কত টাকাই বা দিতে পারব?‌’‌ এমনই মনে হয়েছিল শর্মিষ্ঠার। তার বদলে যাঁরা সাহায্য করছেন, তাঁদের জন্য কিছু করা যায় না?‌ সেখান থেকেই ছবি দেওয়ার ভাবনা এল তাঁর মাথায়। এতবড় বিপর্যয়ে একজনের সাহায্যে কতটা গুরুত্ব থাকতে পারে?‌ এই প্রশ্ন উঠলে উত্তরও তৈরি। বিন্দু বিন্দু দিয়েই তো সিন্ধু তৈরি হয়। ঠিক যেমন দেখা গিয়েছে গত কয়েকদিনে। অজস্র মানুষ, সংগঠন নেমে পড়েছেন করোনা–সঙ্কট মোকাবিলায়। কোথাও স্কুলপড়ুয়া তুলে দিচ্ছে টিফিনের খরচ থেকে বাঁচিয়ে ভাঁড়ে জমানো টাকা, কোথাও অবসরপ্রাপ্ত নাগরিক পুলিশ ডেকে তুলে দিচ্ছেন তাঁর সঞ্চয়ের টাকা। তাঁদের প্রয়াস, উদ্যোগ মনে রাখার মতো। বার বার ভরসা দিয়ে যাচ্ছে সঙ্কট বড় হলেও মানুষের পাশে দাঁড়ানোর মানুষের সংখ্যাও নেহাত কম নয়। আর তাই সত্যজিৎ রায় ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউট (‌এসআরএফটিআই)‌–এর ফিল্ম এডিটিং বিভাগের ওই পড়ুয়ার মনে হয়েছিল সাহায্যকারীদের তুলে দেবেন উপহার। এই উপহার যেন তাঁদের প্রাপ্য। আর লেগে পড়েছেন সে কাজে। করোনা–সমস্যা সামলাতে অনেক মানুষ অর্থ সাহায্য করেছেন। টাকা জমা দেওয়ার কাগজ দেখালেই তাঁকে উপহার হিসেবে তুলে দেবেন নিজের আঁকা ছবি। ইতিমধ্যে অনেকেই পেয়ে গিয়েছেন ছবি–উপহার। করোনা ত্রাণ তহবিলে যে কোনও অর্থের অঙ্ক দিলেই তিনি দেবেন উপহার। সেগুলি মূলত স্কেচ। তবে পাঁচ হাজার বা তার বেশি টাকা দিলে তাঁকে ক্যানভাসে আঁকা ছবি দেওয়া হবে। সাদা–কালো, রঙিন সব রকমের ছবিই উপহার হিসেবে তৈরি করে রাখছেন তিনি।
ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামের মতো সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা যেতে পারে। বাঁশদ্রোণীর বাসিন্দা শর্মিষ্ঠা অ্যানিমেশন নিয়ে সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ থেকে স্নাতক স্তরের পড়াশোনা করেছেন। এখন এসআরএফটিআই–তে পড়ছেন। কিন্তু এখন তো রাস্তায় বেরনো মুশকিল। ছবি দেবেন কী করে?‌ তিনি বলেন, ‘এখন রাস্তায় বেরনো মুশকিল সত্যি কথা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ধাপে ধাপে সবাইকে উপহার পৌঁছে দেওয়া হবে।’‌ ফের ব্যস্ত হয়ে পড়লেন ছবি আঁকার কাজে। কতজনকে ভালবাসার উপহার তুলে দিতে হবে জানা নেই যে!‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top