অমিতাভ বিশ্বাস, তেহট্ট: তেহট্টের বার্নিয়া গ্রামে আতঙ্ক বাড়ছে। এই গ্রামেই ৫ জনের করোনা ধরা পড়েছে। এরপর কেউ টাকা রোদে দিচ্ছেন, আবার কেউ জীবাণুনাশক দিয়ে ধুয়ে নিচ্ছেন। বিশেষ করে মুদি দোকানিরা। ক্রেতাদের দেওয়া টাকা একটি পাত্রে কীটনাশক মিশ্রণে ভাল করে ধুয়ে রোদ্দুরে শুকিয়ে ঘরে তুলছেন। তেহট্ট থানার বেতাই কাঠমিল এলাকার এক মুদি দোকানের মালিক পিকলু মণ্ডল জানান, টাকা সম্পূর্ণ জীবাণুমুক্ত নয় বলেই মনে হচ্ছে। পকেটে রাখা টাকাপয়সা বিভিন্ন হাতে ঘুরে বেড়াচ্ছে, আর সেটা নিয়েই চিন্তা এলাকাবাসীর। বিপুল মণ্ডল নামে এক ক্রেতা বলেন, ‘‌বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে ব্যবসায়ীরা যেটা করছেন ঠিকই করছেন, আমাদের সকলেরই এই পন্থা মেনে চলা উচিত। কারণ কোনও ভাইরাসঘটিত ব্যক্তির কাছ থেকে টাকাটা আমি হাত দিয়ে নিচ্ছি, আবার সেই হাত মুখে দিচ্ছি। টাকা থেকেই হয়তো সংক্রমণের আশঙ্কা থাকছে। তাই সতর্ক থাকাই ভাল। ‌

জনপ্রিয়

Back To Top