আজকালের প্রতিবেদন: আরও ৭২ জন করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা ১ হাজার ৪৮৬ জন। সুস্থতার হার ৩৭.০৬ শতাংশ।‌‌ ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪ হাজার ৯ জন। আরও ১১৬ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। মোট চিকিৎসাধীন ২ হাজার ২৪০ জন। গত চব্বিশ ঘণ্টায় আরও ৫ জনের করোনায় মৃত্যু হয়েছে। এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ২১১। কো–মর্বিডিটির কারণে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৭২ জনই রয়েছেন। মঙ্গলবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় এই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, গত চব্বিশ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৯ হাজার ২২৮টি। এখনও পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ১ লক্ষ ৫৭ হাজার ২৭৭টি। এতগুলো নমুনা পরীক্ষা হওয়াকে অত্যন্ত ভাল দিক বলে উল্লেখ করেন স্বরাষ্ট্রসচিব।
নমুনা পরীক্ষা অনুযায়ী পজিটিভিটি রেট এদিন ছিল ২.‌‌৫৫ শতাংশ। দ্রুততার সঙ্গে রাজ্য সরকার ল্যাবরেটরির সংখ্যা বাড়িয়ে বেশি বেশি নমুনা পরীক্ষা করে এই সাফল্য অর্জন করতে পেরেছে বলে মত স্বাস্থ্যকর্তাদের। আরও একটি ল্যাবরেটরি বেড়ে ৩৩ থেকে ৩৪টি হল। শ্রীরামপুর হাসপাতালে শুরু হয়েছে করোনা পরীক্ষা।  সরকারি কোয়ারেন্টিনে র‌য়েছেন ১৮ হাজার ১৪৬ জন। সরকারি কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৪২ হাজার ২০২ জন। হোম কোয়ারেন্টিনে  রয়েছেন ১ লক্ষ ৩ হাজার ৫৬৪ জন। হোম কোয়ারেন্টিন থেকে মুক্ত হয়েছেন ৭৯ হাজার ৪৭৬ জন। করোনায় নতুন আক্রান্তদের মধ্যে শুধু কলকাতারই ৫৮ জন রয়েছেন। উত্তর চব্বিশ পরগনা ২৪, হুগলি ১৯, হাওড়া ২১, পশ্চিম বর্ধমান ১০, বীরভূম ১০, মুর্শিদাবাদ ১৩ জন–‌সহ আরও অন্যান্য জেলা থেকে দু–এক করে আক্রান্ত হয়েছেন।    
কলকাতা পোর্ট ট্রাস্ট সূত্রে জানা গেছে, মোট ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে কর্মী ৩, চুক্তিভিত্তিক কর্মী ৭ এবং অন্যান্য কর্মী ৩ জন। সন্দেহের তালিকায় চার জন রয়েছেন। তাঁদের রিপোর্ট আসেনি। আরও ২ জন করোনা আক্রান্তের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। গত চব্বিশ ঘণ্টায় ৬ জন চুক্তিভিত্তিক কর্মীর অবস্থা স্থিতিশীল হয়েছে।  
বিধাননগরের দত্তাবাদ এলাকার বাসিন্দা এক মহিলা অসুস্থ অবস্থায় ২১ মে কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হলে ওইদিনই তাঁর মৃত্যু হয়। পরিবারের দাবি, করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ ছিল। সাউথ ট্র‌্যাফিক গার্ডের অতিরিক্ত ওসি–‌র করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। তিনি ডিসানে ভর্তি।  কলকাতা পুলিশ ট্রেনিং স্কুলে ২ এসআই–‌সহ ১২ জন করোনা আক্রান্ত বলে জানা গেছে। আসানসোল জেলা হাসপাতালের ন্যায্য মূল্যের ওষুধের দোকানের এক কর্মচারীর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তাঁকে দুর্গাপুরের কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বারাবনি ব্লকের পানুরিয়ায় দু’‌জন আক্রান্ত হয়েছেন। গৌরান্ডি বাইপাস এলাকার এক অন্তঃসত্ত্বা চিকিৎসার জন্য বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে গিয়েছিলেন। সেখানে তাঁর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এলে তাঁকেও দুর্গাপুরের কোভিড হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।‌

জনপ্রিয়

Back To Top