না। অর্জুন চক্রবর্তীর কথা বলছি না। চক্রবর্তী অর্জুন সিরিয়ালে, ফিল্মে বিখ্যাত। আমরা বলছি সিং অর্জুনের কথা। অর্জুন সিং। তিনি একটি সিরিয়ালের চিত্রনাট্য রচনা করছেন। তিনিই পরিচালক, তিনিই প্রধান অভিনেতা। সম্প্রতি তাঁর উপযুক্ত পুত্র পবনের নেতৃত্বে গুন্ডামিতে ভরা অবরোধ করছিল বিজেপি কর্মীরা। উদ্দেশ্য, তৃণমূলের অফিস পুনরুদ্ধারে বাধা দেওয়া, পুলিশকে হেনস্থা করা। মহাবলীকে নাকি আইসি ফোন করে বলেন, ‘‌স্যর, এখানে অবরোধ হচ্ছে, প্লিজ এসে তুলে নিন।’‌ অর্জুন বলেন, যাচ্ছেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখেন, পুলিশ বেধড়ক মারছে তাঁর অনুগামীদের!‌ এবং শান্তিপ্রিয় তিনি, হঠাৎ দেখলেন, ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশনার মনোজ বর্মা নেতার দিকে এগিয়ে আসছেন। মাথায় লাঠির বাড়ি। ভয়ঙ্কর আহত। তাঁকে নার্সিংহোমে, ব্যবস্থা ভালই, যেতে হল। থাকতে হল। এডিজি জ্ঞানবম্ত সিং জানিয়ে দিলেন, হাস্যকর অভিযোগ। পুলিশ মাথায় বাড়ি মারে না। সিরিয়ালের পরের পর্বে অর্জুনের গল্প, প্রথমে ভেবেছিলেন লাঠি, কিন্তু আঘাত ক্ষত গুরুতর জেনে বুঝেছেন, লাঠি নয়, পিস্তলের বাঁট দিয়ে মেরেছেন স্বয়ং পুলিশ কমিশনার। ছবি দেখালেন, মনোজ বর্মা পিস্তল হাতে ছুটছেন। তিনি তো পুলিশ কমিশনারকে লাঠি আনতে দেখেছিলেন, সেটা পিস্তল হয়ে গেল কীভাবে?‌ ভুল ‘‌দেখলেন’‌?‌ ঘটনা, আক্রমণাত্মক ছিল বিজেপি কর্মীরা। তাঁর মাথায় ইট পড়েছে, যা ছুঁড়েছে অনুগামীরা। ঘটনা, সেদিন অর্জুনের বাড়ি থেকে মুখে কালো কাপড়–‌বাঁধা দুষ্কৃতীরা বেরিয়েছে, একটা সময়ে ফিরেছে। খোঁজ করতে চেয়েছিল পুলিশ, ওরা ঢুকতে দেয়নি। ৩ দিন পরে অর্জুন:‌ ‘‌মনোজ বর্মা কুৎসিত গালি দিতে দিতে এসে মেরেছেন!‌’ গালিটা তিনদিন পর শুনলেন?‌‌    ‌‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top