ভয়াল ভাইরাস কোনও রাজ্যকে ছেড়ে কথা বলছে না। কোনও রাজ্যে সংক্রমণ বেশি, কোনও রাজ্যে কম, কিন্তু সমস্যাটা জাতীয়, আন্তর্জাতিক। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে প্রথম ভিডিও বৈঠকে বলেছিলেন, কোনও রাজ্যকে দোষারোপ করা নয়, কোনও রাজ্যকে কোণঠাসা নয়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর এই কথাটা আমার ভাল লাগল। ভাল লাগার মতোই কথা। বাস্তবে কী হল?‌ দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ৬টি রাজ্যের মধ্যে আছে বিজেপি–‌শাসিত ৩টি রাজ্য। এজন্য বিজেপি–‌কে দায়ী হিসেবে চিহ্নিত করছে না কোনও বিরোধী দল। গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ ও মধ্যপ্রদেশে অব্যবস্থার জন্যই বেশি আক্রান্ত, একথা কি মমতা বলেছেন?‌ তঁার দল তৃণমূল বলেছে?‌ দেশের একটা রাজ্যকে বেছে নিল কেন্দ্রীয় সরকার, বিব্রত করার জন্য। বাংলায় পাঠানো হল কেন্দ্রীয় দল। ওঁরা এলেন মুখ্যমন্ত্রীকে না জানিয়ে, ঘুরতে থাকলেন নিজেদের ইচ্ছামতো। প্রশাসনের কর্তারা যখন দিনরাত খাটছেন, তঁাদের বারবার ডেকে পাঠানো হল। ঘনঘন বিষাক্ত চিঠি। এবং প্রকাশ্যে রাজ্যের নিন্দা। কই, গুজরাট বা উত্তরপ্রদেশ বা মধ্যপ্রদেশে তো কোনও দল পাঠানো হল না?‌‌‌‌ বিব্রত করা হল না। প্রধানমন্ত্রীর কথার সঙ্গে কাজের মিল থাকল?‌ রেলমন্ত্রী বলে যাচ্ছিলেন, বাংলা পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরার অনুমতি দিচ্ছে না। দিলীপ ঘোষ চেঁচাচ্ছিলেন, দরদ নেই রাজ্য সরকারের। ওদিকে বিজেপি–‌শাসিত কর্ণাটক জানিয়ে দিল, কোনও বাস বা ট্রেন ঢুকতে দেবে না। তার বেলা?‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top