আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সুইস ব্যাঙ্কে ভারতীয়দের গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ ৫০ শতাংশের বেশি বেড়েছে। এই খবরের প্রতিক্রিয়ায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল জানান, ২০১৯ সালের অর্থবর্ষে কালো টাকার সব তথ্য পাবে ভারত। কেউ এক্ষেত্রে বেআইনি কাজে জড়িত প্রমাণ পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিদেশি ব্যাঙ্কে পাচার করা বেআইনি টাকার বিরুদ্ধে নরেন্দ্র মোদির সরকার অভিযান চালাচ্ছে বলে তাঁর দাবি। তার মধ্যেই তিন বছরের নিম্নমুখী প্রবণতায় ছেদ ঘটিয়ে ২০১৭ সালে সুইস ব্যাঙ্কে ভারতীয়দের সঞ্চিত অর্থ ৫০ শতাংশের বেশি বেড়ে ১.০১ বিলিয়ন সিএইচএফ বা ৭ হাজার কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে। তুলনায় সুইস ব্যাঙ্কের সব বিদেশি গ্রাহকদের জমানো মোট অর্থ প্রায় ৩ শতাংশ বেড়ে ১.৪৬ ট্রিলিয়ন সিএইচএফ বা ১০০ লক্ষ কোটি হয়েছে।
সুইৎজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ সুইস ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক এই পরিসংখ্যান দিয়েছে। দ্বিপাক্ষিক চুক্তির আওতায় ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সব ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের যাবতীয় তথ্য সুইৎজারল্যান্ড চলতি আর্থিক বছর শেষেই ভারতকে দেবে বলে জানান গোয়েল। তিনি বলেন, ‘‌যেসব তথ্য বেরিয়েছে সবই আমাদের কাছে আসবে। এই অর্থের প্রায় ৪০ শতাংশ লিবারালাইজড রেমিট্যান্স স্কিম (এলআরএস) থেকে আসা। সব তথ্য হাতে পাব। যদি কেউ দোষী সাব্যস্ত হন সরকার কঠোর পদক্ষেপ করবে।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top