আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ তিন মাসে ১০ হাজার কোটি টাকার বাণিজ্যিক ক্ষতি। কারণ সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের পর কেটে গিয়েছে তিন মাস। এই তিন মাসে জম্মু–কাশ্মীরে মুখ থুবড়ে পড়েছে ব্যবসা–বাণিজ্য। আপেল চাষের ক্ষতি ব্যাপক আকার ধারণ করেছে। রবিবার এমনটাই জানালেন কাশ্মীর বণিকসভার সভাপতি শেখ আশিক। তাঁর মতে, ধীরে ধীরে জম্মু–কাশ্মীর স্বাভাবিক হচ্ছে। কিন্তু এই তিন মাসে জম্মু–কাশ্মীরে ব্যবসায়িক পরিস্থিতির যে পতন ঘটেছে তা এখনও স্বাভাবিক হয়নি।
সংবাদসংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‌গত তিন মাস ধরে জম্মু–কাশ্মীরে ব্যবসা বন্ধ। ফলে ভূস্বর্গের আর্থিক পরিস্থিতি অনেকটাই ভেঙে পড়েছে। সরকারের বহু চেষ্টা পরেও এখনও পরিস্থির খুব একটা উন্নতি হয়নি। ব্যবসার একটা বড় অংশ ইন্টারনেট প্রযুক্তির ওপর নির্ভরশীল। সেই ইন্টারনেট ও টেলি যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্প্রতি মোটের ওপর স্বাভাবিক হয়েছে। তাই আর্থিক বিপর্যয়ের মুখে ভূস্বর্গের বাণিজ্য।’‌
বিশ্বের বাজারে ক্রিসমাস ও ইংরেজি নববর্ষের সময় কাশ্মীরের হস্তশিল্প সামগ্রী রপ্তানি করা হয়। তার বরাত আসে জুলাই–আগস্ট মাসে। তখন উপত্যকা জুড়ে ৩৭০ ধারা বিলোপ–সহ অস্থিরতা তৈরি হয়েছিল। যার জেরে প্রভাব পড়েছে আমদানি–রপ্তানি বাণিজ্যে। তাই কাজ হারিয়েছেন প্রায় ৫০ হাজার শ্রমিক।

জনপ্রিয়

Back To Top