সব্যসাচী ভট্টাচার্য,শিলিগুড়ি: উত্তরবঙ্গের হস্তশিল্পকে বিদেশের বাজারে রপ্তানির লক্ষ্যে ডিসেম্বরেই শিল্প সম্মেলন করতে চলেছে কনফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ান ইন্ডাস্ট্রিজ (‌সিআইআই)‌। গত বছরের নর্থ বেঙ্গল কনক্লেভ থেকে ১৭০১ কোটি টাকার বিনিয়োগ প্রস্তাব আসে। তার মধ্যে ৬০০ কোটি টাকার বিনিয়োগ প্রস্তাব ইতিমধ্যেই বাস্তবায়িত হয়েছে। যা যথেষ্টই আশাব্যঞ্জক বলে মনে করছেন শিল্পকর্তারা। এবারের কনক্লেভে তাঁরা তাই রপ্তানিতে জোর দিতে চাইছেন বলে জানিয়েছেন সিআইআই উত্তরবঙ্গ জোনের চেয়ারম্যান কমল কিশোর তেওয়ারি।
চলতি বছর নর্থ বেঙ্গল কনক্লেভের ষষ্ঠ বর্ষ। ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহে বড়দিনের আগেই উত্তরবঙ্গের এই বৃহত্তম শিল্প সমাবেশ সেরে ফেলতে চাইছে সিআইআই। সিআইআই কর্তাদের মতে উত্তরবঙ্গে শিল্পে জোয়ার এসেছে। রাজ্য সরকার যেভাবে শিল্প মহলের পাশে দঁাড়িয়েছে তাতে বিনিয়োগের দরজা অনেকটাই খুলেছে। বিশেষ করে গজলডোবায় ‘‌ভোরের আলো’ প্রকল্প চালু হওয়ার পর পর্যটন সংক্রান্ত বিনিয়োগ আসা শুরু হয়েছে। নভেম্বরের প্রথমেই গজলডোবায় লগ্নি টানতে রাজ্যের উদ্যোগে শিলিগুড়িতে আরও একটি শিল্প সম্মেলন হওয়ার কথা রয়েছে। সেই সম্মেলন থেকেও বেশ কিছু বিনিয়োগের সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করছে শিল্প মহল। ইতিমধ্যেই গজলডোবাতে হোটেল রিসর্ট গড়তে বিনিয়োগ হয়েছে। পর্যায়ক্রমে আরও কিছু বিনিয়োগ হতে চলেছে। শিল্প কর্তারা মনে করছেন শুধু বিনিয়োগ করে দায়িত্ব পালন নয়। এখানকার চিরাচরিত উৎপাদিত পণ্য, শিল্প সামগ্রীকে বিদেশের বাজারজাত করাটাও তাঁদের লক্ষ্য। এক্ষেত্রে সিআইআই মেলবন্ধনের কাজ করতে পারে। তাই শিল্প মহলের দায়িত্ব কোচবিহারের শীতলপাটি, কালিম্পঙের হস্তশিল্প–‌অর্কিড, উত্তর দিনাজপুরের তুলাইপাঞ্জি চাল, মালদার সিল্ক–‌আম রপ্তানির পথ সুগম করা। এবারের শিল্প সম্মেলনে বাংলাদেশ, নেপাল, ভুটান ও মায়ানমারের মতো দেশ যোগ দিতে চলেছে। এছাড়াও রপ্তানিকারক সংস্থাগুলিকেও সম্মেলনে আহ্বান জানানো হবে। ব্রিটেন, জার্মানি, আমেরিকা, ও জাপানের মতো দেশগুলিতে উত্তরবঙ্গের পণ্য রপ্তানির লক্ষ্য রাখা হয়েছে বলে সিআইআই সূত্রে জানা গেছে।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top