আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ নির্মলা সীতারমনের বাজেটের পর সোমবারও বাজার খুলতেই এক ধাক্কায় সেনসেক্স সূচক পড়ল ৪০০ পয়েন্ট। বেলা ১২টার আগেই তা ৬০০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। তারপর থেকে শুধুই পড়তে শুরু করেছে। এখন তা নেমে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৯০০ পয়েন্ট। ২০১৯ সালে সবথেকে খারাপ দিন বলে মনে করা হচ্ছে। দু’দিন আগেই ৪০ হাজার ছুঁয়েছিল সেনসেক্স। কিন্তু অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামের বাজেট পেশ শেষ হতে না হতেই শেয়ার বাজারেও ধস নেমে আসে। শুক্রবার প্রায় ৪০০ পয়েন্ট পড়ে সেনসেক্স। ফলে বাজেট যে জনমুখী নয় তা স্পষ্ট হয়ে গেল।
পেট্রোল–ডিজেলে সেস–শুল্ক হিসাবে ২ টাকা বসানো হয়েছে। যার জেরে মূলবৃদ্ধির আশঙ্কা রয়েছে। আগামী পাঁচ বছরে ৫ লক্ষ কোটি অর্থনীতি ঘোষণা করলেও বিনিয়োগের স্পষ্ট দিশা দেখাতে পারেননি সীতারামন। ২০১৮–১৯ অর্থবর্ষে রাজকোষের ঘাটতি বেড়ে চলতি বছরে প্রায় এক লক্ষ কোটি টাকা দাঁড়িয়েছে। অর্থমন্ত্রী ঘোষণা করেন, লগ্নিকারিরা এবার ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ন্যূনতম শেয়ার রাখতে পারবেন। এতে শেয়ারের জোগান বাড়লেও, দাম বাড়ার পরিপন্থী হতে পারে বলে মনে করছেন অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। 
সোমবার ব্যাঙ্ক, অটো, তথ্য ও প্রযুক্তি, তেলের শেয়ারে ব্যাপক ধস নামে। নিফটি ব্যাঙ্ক (২.১৬ শতাংশ), নিফটি তথ্য ও প্রযুক্তি (১.২৫ শতাংশ), নিফটি অটো (২.৯৩ শতাংশ) পড়ে। সর্বাধিক শেয়ার দর পড়েছে বাজাজ ফিনান্স, মারুতি সুজ়ুকি, ওএনজিসি, আইওসি। 

জনপ্রিয়

Back To Top