আজকাল ওয়েবডেস্কঃ ২৫ মার্চ থেকে ১৪ এপ্রিল। আগামী ২১ দিন দেশজুড়ে লকডাউন। করোনা ভাইরাস যাতে আর না ছড়ায় তাই এই সিদ্ধান্ত। 24 মার্চ জাতির উদ্দেশে ভাষণে একথা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তবে এতে করোনা ভাইরাসকে আটকানো গেলেও বড়সড় ক্ষতির মুখে পড়তে চলেছে ভারতীয় অর্থনীতি। অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, এই 21 দিনের লকডাউনে ভারতের আর্থিক ক্ষতি হতে পারে ভারতের মোট জিডিপির 4 শতাংশ অর্থাৎ 120 বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় যা কি না 9 লক্ষ কোটি টাকা।
বার্কলেইস নামে একটি ব্রিটিশ সংস্থা জানিয়েছে, চলতি আর্থিক বছরে ভারতের আর্থিক বৃদ্ধির হার যা ভাবা হয়েছিল, করোনার ধাক্কায় তার চেয়ে ১.৭ শতাংশ কম হবে। অর্থাৎ 5 শতাংশ নয়, হবে ৩.৫ শতাংশ। আর করোনার কারণে তিন সপ্তাহের যে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে, তাতে ক্ষতি হবে ১২0 বিলিয়ন মার্কিন ডলার। অর্থাৎ প্রায় ন’লক্ষ কোটি টাকা। আগামী ৩ এপ্রিল দ্বিমাসিক পলিসি রিভিউ ঘোষণা করতে পারে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। আশা করা হচ্ছে, তাতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সুদের হার কমানো হবে। রাজকোষ ঘাটতির যে লক্ষমাত্রা বেঁধে রাখা হয়েছে, তাও হয়ত মেনে চলা হবে না। ব্রিটিশ ওই সংস্থার দাবি, রিজার্ভ ব্যাঙ্ক রেপো রেট ০.৬৫ শতাংশ কমাবে। এছাড়া সুদ কমাবে এক শতাংশ।
এই পরিস্থিতিতে অর্থনীতিবিদরা বলছেন, করোনার ধাক্কা সামলাতে অবিলম্বে আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করা প্রয়োজন। একই সুর ভারতীয় একটি অর্থনৈতিক সংস্থারও গলাতেও। এমকে নামে একটি সংস্থার বিবৃতিতে বলা হয়েছে, করোনার ফলে অর্থনীতির যথেষ্ট ক্ষতি হবে। তাদের মতে, সরকারের অবিলম্বে আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করা উচিত। সরকার ছোট ব্যবসায়ীদের সহজ শর্তে ঋণ দিক। পারলে ঋণ মকুব করুক।
 

জনপ্রিয়

Back To Top