আজকালের প্রতিবেদন: কর্মসংস্থানে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে রাজ্যের আবাসন শিল্প। আবাসন শিল্পের কাজে আরও দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র তৈরি করবে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। রাজারহাটে ১১ একর জমির ওপর তৈরি হবে ওই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। বৃহস্পতিবার ক্রেডাই বেঙ্গলের ‘‌স্টেটকন ২০১৯’‌ অনুষ্ঠানে একথা জানালেন অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। তিনি জানান, এখন ৯টি বড় সিমেন্ট প্রস্তুতকারক সংস্থার কারখানা রয়েছে রাজ্যে। আরও একটি তৈরি হবে। ২০১১ সাল থেকে চলতি বছর পর্যন্ত রাজ্যের আবাসন শিল্পে ৪০ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ হয়েছে। আবাসন তৈরি হয়েছে ১.৭৫ ‌লক্ষ ইউনিট। এর মধ্যে মধ্যবিত্তদের কথা ভেবে ৬০–৭০ শতাংশ তৈরি করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে আবাসনমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য জানান, ৫০০ বর্গফুটের বেশি বাড়ি, ফ্ল্যাট কেনার সময় লেনদেনে স্বচ্ছতা আনতে ২০১৪ সালে একটি আইন তৈরি করা হয়েছে।  
মাথা গোঁজার ঠাঁই কিছুটা হলেও নিম্ন ও মধ্যবিত্ত ক্রেতাদের হাতের নাগালে এনে দিতে একাধিক উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এতে স্বাভাবিক ভাবেই খুশি আবাসন শিল্পমহল। আবাসন নির্মাণ সংস্থাগুলির সংগঠন ক্রেডাই-এর আশা, এর ফলে ব্যবসায় নতুন করে জোয়ার আসবে।
চলতি অর্থবছরে কলকাতা ও তার সংলগ্ন এলাকায় আবাসনের দাম কমেছে বলে দাবি করেছে ক্রেডাই। বিক্রিও বেড়ছে। ফলে, নির্মীয়মাণ অবস্থায় পড়ে থাকা আবাসনের সংখ্যা অনেকটাই কমেছে। ‌‌অনুষ্ঠানে ছিলেন সংস্থার চেয়ারম্যান ও সিইও অংশুমান ম্যাগাজিন।

 

অমিত মিত্র। ক্রেডাইয়ের অনুষ্ঠানে। ছবি: পিটিআই 

জনপ্রিয়

Back To Top