আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ প্রায়দিনই লাদাখ সীমান্তে ভারত–চীনের সেনার মধ্যে উত্তেজনা বাড়ছে। ইতিমধ্যে তা প্রাণঘাতী সংঘর্ষেও পরিণত হয়েছে। এমনকি গোটা দেশজুড়ে অনেকেই চীনা পণ্য বর্জনের ডাকও দিয়েছেন। কিন্তু এরপরই ভারত–চীন বাণিজ্যে কোনও প্রভাব হয়ত পড়েনি। কেননা চীনের বিখ্যাত মোটরগাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা ‘‌গ্রেট ওয়াল মোটরস’ আগামিদিনে ভারতে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করবে। তবে একেবারে নয়, ধাপে ধাপে। ইতিমধ্যে ম‌হারাষ্ট্র সরকারের সঙ্গে মৌ চুক্তি স্বাক্ষরিতও হয়েছে। মহারাষ্ট্র সরকারের তেলেগাঁও প্রকল্পে বিনিয়োগ করবে সংস্থাটি। ভারতে নিযুক্ত সংস্থার দুই প্রতিনিধি জেমস ইয়াং, পার্কার শি, চীনা অ্যাম্বাসেডর সুন ওয়েই ডঙ এবং মহারাষ্ট্র সরকারের শিল্পমন্ত্রী সুভাষ দেশাইয়ের উপস্থিতিতে একটি ভার্চুয়াল বৈঠকে এই মৌ সাক্ষরিত হয়। 
এদিকে, ভারত–চীন সীমান্ত সমস্যা যদিও আরও বেড়েছে। সোমবার রাতে গলওয়ান উপত্যকায় চীন সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে ভারতীয় সেনার এক কর্নেল এবং দুই জওয়ান নিহত হলেন। গতকালই দু’পক্ষের ব্রিগেডিয়ার পর্যায়ের বৈঠক শুরু হয়েছিল। তার পরেই এই হামলা।
মঙ্গলবার দুপুরে একটি বিবৃতি দিয়ে ভারতীয় সেনা জানাল, ‘‌গলওয়ান উপত্যকায় উত্তেজনা প্রশমন প্রক্রিয়ার চলাকালীনই গতকাল রাতে সংঘর্ষ এবং মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। ভারতীয় সেনার এক অফিসার এবং দুই জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। দু’পক্ষের শীর্ষস্তরের অফিসারেরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বৈঠক করছেন।’‌ 
ভারতীয় সেনার তরফে এও জানানো হয়েছে, চীন সেনার সঙ্গে গোলাগুলি চলেনি। বরং হাতাহাতি হয়েছে। রড, পাথর নিয়ে একে অন্যের ওপর হামলা হয়েছে। তাতে চীন সেনাও মারা গেছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে পরিস্থিতি সম্পর্কে জানানো হয়। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংহ, বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ (সিডিএস) জেনারেল বিপিন রাওয়াত দুপুরে স্থল, নৌ ও বায়ুসেনার প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেন। কী কারণে মারামারি, জানা যায়নি।    

জনপ্রিয়

Back To Top