আজকাল ওয়েবডেস্ক: ভোট বড় বালাই। এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ড অর্গানাইজেশন বা ইপিএফও, এমপ্লয়িজ পেনসন স্কিম বা ইপিএস–এর আওতায় থাকা পেনশনভোগীদের পেনশন দ্বিগুণ করতে পারে। যার অর্থ নূন্যতম ১০০০ টাকার পেনশন বেড়ে হবে ২০০০ টাকা। এর ফলে লাভবান হতে পারেন ৪০ লক্ষ মানুষ। তবে এজন্য কেন্দ্রের বছরে প্রায় চার কোটি টাকা খরচ হবে। ২০১৪ সালে কেন্দ্র ইপিএস–এর আওতায় থাকা পেনশনভোগীদের জন্য মাসিক নূন্যতম একহাজার টাকা করে পেনশন দেওয়া শুরু করেছিল। এজন্য বর্তমানে কেন্দ্রের ৮১৩ কোটি টাকা খরচ হয়।   
ইপিএফও সংক্রান্ত যাবতীয় সিদ্ধান্তকারী সংগঠন সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ট্রাস্টিজ বা সিবিটি, মঙ্গলবারই বৈঠকে বসছে। সেখানেই এই প্রস্তাব পেশ করতে পারে বোর্ড। তবে বোর্ডের চেয়ারম্যান তথা কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রীর সিলমোহর না পাওয়া পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত অনুমোদিত হবে না। এছাড়া ইপিএফও–র আওতায় থাকা পাঁচ কোটি পেনশনারকে তাঁদের অবসরের পর পাওয়া অর্থের অনেক বেশি শেয়ারে বিনিয়োগের প্রস্তাবও পাস করতে পারে সিবিটি। তাহলে আরও বেশি টাকা ফেরত পেতে পারেন পেনশনাররা। শ্রম মন্ত্রক ইক্যুইটি বিনিয়োগের সীমা ১৫ শতাংশ করতে পারে মঙ্গলবারের সিবিটি–র বৈঠকে বলেও ইঙ্গিত মিলেছে। 
বর্তমানে ইপিএস–৯৫•এর আওতায় ৬০ লক্ষ মানুষ আছেন। তাঁদের মধ্যে ১৮ লক্ষ মানু্ষ নূন্যতম ১০০০ টাকা পেনশন পান। ইপিএফ প্রকল্পের আওতায় থাকা সব কর্মীই ইপিএস–র সদস্য। যে সব কর্মী মাসিক ১৫০০০ টাকার বেশি বেতন পান, তাঁদের ইপিএফ–এ টাকা দেওয়া বাধ্যতামূলক।

জনপ্রিয়

Back To Top