আজকালের প্রতিবেদন: পেট্রোল–‌ডিজেলের মূল্য লাগামছাড়া। আগের সব হিসেব ছাপিয়ে মঙ্গলবার দেশজুড়ে রেকর্ড দামে পৌঁছোল ডিজেল। কলকাতায় পেট্রোলের দামও রেকর্ড করল। সারা দেশেই রেকর্ডের কাছাকাছি পেট্রোলের দাম। এনিয়ে টানা পর পর তিনদিন বাড়ল পেট্রোপণ্যের দাম। 
এদিন কলকাতায় পেট্রোলের দাম ছিল লিটারে ৮১ টাকা ০৩ পয়সা। এতাবৎকালের সর্বোচ্চ। লিটার পিছু একদিনে বেড়েছে ১৪ পয়সা। গত মাসের শেষে কলকাতায় পেট্রোলের দাম ছিল ৭৯ টাকা ১৮ পয়সা লিটার। এদিন কলকাতায় ডিজেলের দাম লিটারে ১৫ পয়সা বেড়ে হয়েছে ৭২ টাকা ৪৬ পয়সা। এ বছর ২৮ ফেব্রুয়ারি ডিজেলের দাম ছিল লিটারে ৬৪ টাকা ৮৪ পয়সা। অর্থাৎ ৬ মাসে দাম বেড়েছে লিটারে ৭ টাকা ৬২ পয়সা। 
মঙ্গলবার দিল্লিতে ডিজেলের দাম ছিল লিটারে ৬৯ টাকা ৬১ পয়সা। যা এতাবৎকালের সর্বোচ্চ দাম। সোমবার ওই দাম ছিল ৬৯ টাকা ৪৬ পয়সা। পেট্রোলের দাম ছিল লিটারে ৭৮ টাকা ০৫ পয়সা। চলতি বছরের মে মাসের শেষে পেট্রোলের দাম সর্বোচ্চ বেড়ে দাঁড়িয়েছিল লিটারে ৭৮ টাকা ৪৩ পয়সা। তার পর মঙ্গলবারের বর্ধিত দামই সর্বোচ্চ। 
কেন ক্রমাগত বাড়ছে পেট্রোল–ডিজেলের দাম?‌
বিশ্ববাজার এবং টাকার দাম— মূলত এই দুটি বিষয়ের নির্ভর করে এদেশে জ্বালানির দাম দৈনিক ভিত্তিতে পর্যালোচনা করে তেল কোম্পানিগুলি। ভেনেজুয়েলা, ইরান ও আফ্রিকার কয়েকটি দেশে রাজনৈতিক অস্থিরতার জেরে অশোধিত তেলের সরবরাহ নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। এর মধ্যে চীন–মার্কিন বাণিজ্য সঙ্ঘাতের জেরে ওপেকভুক্ত দেশগুলি অশোধিত তেলের সরবরাহ কমিয়ে রেখেছে। পাশাপাশি, ডলারের তুলনায় দাম কমেছে টাকার। 
এসবের প্রতিক্রিয়াতেই পেট্রোল–ডিজেলের দাম ঊর্ধ্বমুখী। আন্তর্জাতিক বাজারে কম দামের সময় বার বার জ্বালানিতে বাড়তি শুল্ক চাপিয়েছে মোদি সরকার। যার ফলে দাম কমার পুরো সুযোগ দেশের ক্রেতারা পাননি। প্রশ্ন, এখন সেই শুল্ক কমানো হবে না কেন?‌ সরকার রাজস্ব আদায়ের কথা ভাবছে। কিন্তু তেলের, বিশেষত ডিজেলের দামবৃদ্ধিতে সাধারণের দুর্ভোগ ছাড়াও থেকে যাচ্ছে মুদ্রাস্ফীতির শঙ্কা, সুদের হার বৃদ্ধির সমস্যা। যা গোটা দেশের অর্থনীতির পক্ষেই চিন্তার।   

জনপ্রিয়

Back To Top