আজকালের প্রতিবেদন: দেশের বিদ্যুৎ শক্তির ৭৩ শতাংশই আসে কয়লা থেকে। কয়লা সম্পদের নিরিখে ভারতের স্থান গোটা দুনিয়ায় পঞ্চম। তবু লাখ লাখ ডলার খরচ করে আমদানি করতে হয় কয়লা। তাই আধুনিক প্রযুক্তিকে গুরুত্ব দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। সেই আধুনিক প্রযুক্তির সুলুক–‌সন্ধানে ৬ নভেম্বর কলকাতায় শুরু হচ্ছে ৮ম এশিয়ান মাইনিং কংগ্রেস (এএমসি)। চলবে ৮ নভেম্বর পর্যন্ত। একই সঙ্গে আয়োজন করা হয়েছে প্রযুক্তি প্রদর্শনীরও। 
এএমসি উপলক্ষে শুক্রবার আয়োজক সংস্থা মাইনিং জিওলজিকাল অ্যান্ড মেটালার্জিক্যাল ইনস্টিটিউট (এমজিএমআই) আয়োজন করেছিল সাংবাদিক সম্মেলনের। উপস্থিত ছিলেন কোল ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান তথা এমজিএমআই–‌এর সভাপতি অনিলকুমার ঝা, নর্দার্ন কোল লিমিটেডের সিএমডি তথা এমজিএমআই–‌এর সহ–‌সভাপতি পি কে সিনহা, কলকাতায় নিযুক্ত অস্ট্রেলীয় কনসাল জেনারেল অ্যান্ড্রু ফ্রড প্রমুখ। কোল ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যানের দাবি, দেশের উন্নয়নে বিদ্যুৎ শক্তির প্রয়োজন সবচেয়ে বেশি। ভারতে বিদ্যুতের মূল উৎসই হচ্ছে কয়লা। মাটির নীচে পর্যাপ্ত কয়লা থাকলেও বছরে ২৩৫ মিলিয়ন টন কয়লা আমদানি করতে হচ্ছে। এরমধ্যে অন্তত ১৯০ মিলিয়ন টন কয়লা আমদানি কমানো যায় বলে মনে করেন তিনি। দাবি করেন, সেই লক্ষ্যেই কাজ করছে কোল ইন্ডিয়া। 
ইতিমধ্যেই ৬ হাজার কোটি টাকার আধুনিক মেশিনারির অর্ডার দিয়েছে সংস্থাটি। কিন্তু খনির নিরাপত্তা ও দক্ষতা বাড়াতে আরও আধুনিক প্রযুক্তির প্রয়োজন বলে এমজিএমআই সভাপতি মনে করেন। তাই এই সম্মেলন ও প্রদর্শনী বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বলেও দাবি করেন তিনি। কথা প্রসঙ্গে তিনি জানান, তিন বছরের মধ্যেই ভারতে কয়লার প্রয়োজন ও ঘাটতির মধ্যে ব্যবধান অনেকটাই কমানোর লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছে। আর তার জন্যই তাঁরা নতুন নতুন প্রযুক্তির সন্ধান চালাচ্ছেন।

কোল ইন্ডিয়ার সিএমডি এ কে ঝা শুক্রবার কলকাতায় সাংবাদিক বৈঠকে আগামী এমজিএমআই কংগ্রেসের কথা ঘোষণা করলেন। 

জনপ্রিয়

Back To Top