আজকাল ওয়েবডেস্ক: এবছরের যে বাজেটে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী যে, রাজকোষ ঘাটতি ৩.‌৫ শতাংশে বেঁধে রাখার লক্ষ্য নিয়েছিলেন, তা পূরণ করা কেন্দ্রের পক্ষ অসম্ভব হতে পারে। সরকারি সূত্রে এই ইঙ্গিতই মিলেছে। এই ঘাটতি কত বড় হতে পারে সেই আন্দাজও তাদের পক্ষে করা অসম্ভব বলেই জানিয়েছে সরকারি সূত্র। তবে সরকারি সূত্রে খবর, খোলা মনে আরেকটা বড় আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণার কথা চিন্তাভাবনা করছে কেন্দ্র। 
আগস্ট পর্যন্ত গত পাঁচ মাসে কেন্দ্রের রাজকোষ ঘাটতি দাঁড়িয়েছে ৮.‌৭ লক্ষ কোটি টাকা। যা এই অর্থবর্ষের শেষ, অর্থাৎ ৩১ মার্চ পর্যন্ত নেওয়া সরকারি বাজেটের লক্ষ্যের ১০৯.‌৩ শতাংশ। গত পাঁচ মাসে আগস্ট পর্যন্ত, কর আদায়ের গড় পরিমাণ করেছে ৩০ শতাংশ হারে বা ২.‌৮৪ লক্ষ কোটি টাকা। অথচ এর মধ্যে জ্বালানি কর কিন্তু বেড়েছে। আগামী অর্থবর্ষ ২০২০–২১–এ জিডিপির উপর ঘাটতি ৮ শতাংশ ছাড়িয়ে যেতে পারে। এবং এর মূল কারণ মহামারীর জন্য হওয়া অর্থনৈতিক সঙ্কোচন। এমনটাই মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা। এখনও পর্যন্ত এই সম্পূর্ণ অর্থবর্ষের রাজকোষ ঘাটতি নিয়ে পুনর্বিবেচনাও করেনি কেন্দ্র। বর্তমান অর্থবর্ষে অর্থনীতি ১০ শতাংশ পড়ে যেতে পারে। ১৯৭৯ সালের পর যা এই প্রথম হবে। 

জনপ্রিয়

Back To Top