সব্যসাচী সরকার: বাঙালের নস্টালজিয়া, পশ্চিমবাংলার দৃশ্যায়ন, বহু বিচিত্র চরিত্র (‌সঙ্গতভাবেই লেখকের আবিষ্কার)‌ এবং প্রবহ সময়–‌ ৮৬ পাতার গদ্যের কোলাজ সমন্বিত একটি বই নুন–‌মরিচের জীবন। বাঙালরা কাঁচালঙ্কাকে মন দিয়ে ‘‌মরিচ’‌ বলে ডেকে থাকেন। যেমন, কলার থোড়কে ‘‌ভারালি’‌, শালা (‌গালাগাল অর্থে)‌ হালা, আর যে কোনও ডালকে ডাইল, বস্তা অর্থে ছালা বলে থাকেন। এছাড়াও পূর্ববঙ্গের জেলা ভেদে বহু বিচিত্র (‌জীবন থেকে খুঁটে নেওয়া)‌ শব্দের ব্যবহার রয়েছে। এবং প্রতিটি শব্দ ব্যবহারেরই ব্যাখ্যা থাকে। সে ব্যাখ্যা বেশ উপাদেয়। যদিও, উচ্চারণগত তারতম্যে এবং প্রয়োগের ক্ষেত্র হিসেবে সবসময় শ্রুতিমধুর নাও হতে পারে!‌
এই বইয়ে (‌সঙ্কলন গ্রন্থই বলা ভাল)‌ টুকরো টুকরো গদ্য যা বস্তুত মানুষ দেখার এক ধারাভাষ্য। জীবন দেখার তো বটেই। এ জীবন দেখেছেন খড়দহের বাসিন্দা অনিমেশ বৈশ্য। বিভিন্ন সময় টুকরো গদ্য লেখা হয়েছে। পরে ঝাড়াই বাছাই করে এই সঙ্কলন।
আদতে, এক ব্যক্তি (‌বয়স ৫৩ বছর)‌, যিনি কাঠ বাঙাল বলে একবগ্গা ও উদার। রবি ঠাকুরের গান, ফুটবল, বই, সাদাকালো সিনেমা এবং মনের মতো মানুষের সঙ্গে আড্ডা নিয়ে জীবনযাপন করেন। শুধু এখন করেন না, এভাবেই হয়ত জীবনযাপন করে আসছেন দীর্ঘদিন। জীবনযাপনের সঙ্গেই উল্টোপিঠে জীবনধারণও এঁটে থাকে। তাহলে, লেখার জন্ম জীবনধারণ থেকে পা ফেলে ফেলে জীবনযাপনের দিকে যায়। এই বইতে এরকমই যাপনচিত্রের বিবরণ রয়েছে। যার কেন্দ্রে সময় ও মানুষ।
টুকরো টুকরো লেখার মধ্যে পাঠকেরা অবশ্যই পড়বেন— চোরা শোনে ধর্মের কাহিনী, ভূপর্যটন, রবীন্দ্র–‌নজরুল সন্ধ্যা, স্পেস সায়েন্স, গন্ধ বিচার এবং নিবারণ বাড়ি আছো?‌ অনিমেষ  জীবনানন্দ দাশ, শক্তি চট্টোপাধ্যায়, রবীন্দ্রসঙ্গীত— সব বৃত্তেই মনোযোগী পরিব্রাজক। তাঁর এই ভ্রমণবৃত্তি তাঁকে দিয়েছে দেখার এক অন্য চোখ। তীক্ষ্ণতাও দিয়েছে। দুইয়ের মিশ্রণে বইয়ের লেখাগুলি সে অর্থে হারিয়ে যাওয়ার নয়। হারিয়ে যাওয়া সময়ের কথা তো তিনি রোজই প্রভাতে বা সন্ধ্যায় হাতের তালুর এপিঠে ওপিঠে খুঁজে খুঁজে দেখেন। দেখেন না?‌
জীবনে নুন আর মরিচের মিশ্রণেই যে কোনও সুখাদ্যের ক্ষেত্রে শ্লোকের কাজ করে। আবহমান কালের কাছে সময়ের পাল্টে যাওয়ার পৃষ্ঠাগুলো লিপিবদ্ধ রইল অনিমেষের কলমে। বইটির সুন্দর প্রচ্ছদের কৃতিত্ব তাঁরই পুত্র অগ্নিভর। লেখার সঙ্গে যে ছবিগুলো রয়েছে, তা সুব্রত রায়ের। দেখার এই বর্ণনা পাঠকের কাছে বহু দৃশ্যের জন্ম দেবে। সঙ্কলন ও সম্পাদনায় মনীষা মুখোপাধ্যায়ের মুনশিয়ানা তারিফ করার মতো।
বই শেষ করার পর অবশ্য মনে হবে, আরও তো অনেক কিছু বদলেছে গত দু’‌দশকে। সেখানে বহু মানুষের মুখ, বহুধাবিভক্ত হয়ে নানা ভঙ্গিমায় ধরা দিয়েছে আমাদের চোখে। সেই মুখগুলোও পাঠক দেখতে চায়। না হলে, এই বৃত্ত সম্পূর্ণ হয় না। আমরা অখণ্ড দ্বিতীয় অধ্যায়ের অপেক্ষায়।‌ ■
নুন–‌মরিচের জীবন ●‌ অনিমেষ বৈশ্য ●‌ সঙ্কলন ও সম্পাদনা মনীষা মুখোপাধ্যায় ●‌ খোয়াবনামা ●‌ ১৫০ টাকা

জনপ্রিয়

Back To Top