বর্ণপরিচয়, আদর্শলিপি বা বাল্যশিক্ষার পাশাপাশি রং–বেরংয়ের ছড়া–ছবির বই ছেলেবেলায় সবাই পড়েছে। ‘‌অ–এ অজগর আসছে তেড়ে, আমটি আমি খাব পেড়ে’ সবার মনে‌ থাকে। পুরনো বইয়ের ডালা থেকে হাতে এল ‘‌হাতে খড়ি’‌। ‌শক্ত কার্ডবোর্ডে সত্যজিৎ রায়ের রং–তুলিতে আঁকা ছড়ায় ছবি। ছড়াকার বিমলচন্দ্র ঘোষ। বইটির প্রকাশকাল মুদ্রিত নেই। তবে মূল্য এক টাকা চার আনা। দাম দেখে অনুমান, এ কাজ পথের পাঁচালী তৈরির আগেই হবে। প্রকাশক রাম হালদার। ছেপেছেন সুধীরকুমার মিত্র, বেঙ্গল কার্ডবোর্ড ইন্ডাস্ট্রিজ অ্যান্ড প্রিন্টার্স লিঃ। অজগরের ভয় থেকে বাঁচিয়ে শিশুমনকে ‘‌অথৈ জলে মাছের খেলা, আকাশে চাঁদ তারার মেলা’‌য় পৌঁছে দিতে চেয়েছেন ছড়াকার আর শিল্পী। বর্ণমালার ডিগবাজি খাওয়া ৯‌কারকে এখানে সত্যজিৎ রায় চিরজীবন্ত করে দিয়েছেন কাঠবিড়ালীর লেজে। সব মিলিয়ে অনেক চেনা ছবি। পুরনো বইয়ের ভিড়ে খুঁজে পাওয়া এই বইটি শিশুসাহিত্যের ইতিহাসে একটি অমূল্য পালক সন্দেহ নেই। ■
ভোলানাথ ঘড়ই‌‌‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top