অরুণ মুখোপাধ্যায়: ‘‌আমার লেখালেখির শুরু প্রায় কলেজ–‌জীবনের দোরগড়ায়’, ‌জানাচ্ছেন গল্পকার অনিন্দিতা গোস্বামী তাঁর ‘‌পঞ্চাশটি গল্প’‌ গ্রন্থের ভূমিকায়। নানা পত্রপত্রিকায় অনিন্দিতা বহুদিন ধরে গল্প লিখছেন। বাছাই করা পঞ্চাশটি গল্প একটি বইয়ে রাখার সময় লেখিকা মোটেই সময়ক্রম অনুসরণ করেননি। কারণ, পাঠক বিভিন্ন সময়ে লিখিত গল্প মিলিয়ে পড়লে বৈচিত্র্যের স্বাদ বেশি পাবেন বলে লেখিকা অনুমান করেছেন। কিন্তু সন–‌তারিখ গল্পের শেষে ধরা থাকলে লেখিকার মানসিক পরিবর্তনের ধারাটি ধরা যেত। প্রতিটি গল্পের শেষে কোন পত্রিকায় গল্পটি কোন সালে প্রকাশ পেয়েছে তার উল্লেখ আছে। এই ইতিহাসটুকুর প্রয়োজন ছিল।
অনিন্দিতার গল্পে জীবনবোধের কথা আছে। প্রেম, প্রেমের অব্যক্ত উচ্চারণ, সুখ–‌দুঃখ, আনন্দ–‌বিষাদ, মানবমনের জটিল হিংসার মায়াজাল গল্পে জায়গা করে নিয়েছে। ওষুধ রোগীকে সুস্থ করে। কিন্তু একটি ঘড়ি যে বাঁচার নিদান দেয়, তা লেখিকা বোঝানোর চেষ্টা করেন। ‘‌আসলে ও প্রমাণ করতে চায় আমি ওকে কোনও সুখ দিইনি।’‌ ওই ভাবনায় গল্পের বীজ লুকিয়ে থাকে। দুই বন্ধু ও জ্বলন্ত চুল্লি প্রকৃত বাস্তবকে চিনিয়ে দেয়। অনিন্দিতার গল্প মানে এক ধরনের শূ্ন্যতাবোধকে ফালাফালা করে দেখানো। নব’‌র (‌মডেল)‌ এক রকম কষ্ট। আবার ‘‌পাশের বাড়ি’‌র দেবাঞ্জন বিদেশ গিয়ে কী সাফল্য আনল, তা জানতে গেলে চরম একাকিত্ব ও মৃত্যুর মুখোমুখি হই আমরা। জীবন ও মৃত্যু যে একই মুদ্রার এপিঠ ওপিঠ তা দেখানোর জন্যই অনিন্দিতা কলম ধরেন। জীবন কীভাবে আমাদের বিশ্বাসের সঙ্গে অদ্ভুতভাবে জড়িয়ে যায়, জিভের স্বাদ যে জীবনের চলার পথে ভালবাসার টুকরোয় ছড়িয়ে যায়, তা তিরতির করে বয়ে চলে অনিন্দিতার গল্পে। ‘‌জন্মান্তর’‌ কি অসহায়তার গল্প?‌ নাকি মুক্তির?‌ পাঠক ধাঁধায় পড়বেন। লেখিকা তাঁর চমৎকার গদ্যের মাধ্যমে পাঠককে গল্পটি পড়িয়ে নিতে জানেন। পরিমল মজুমদারের মৃতদেহ উদ্ধার ও তৎসম্পর্কিত গল্পটি রহস্যের না ভূতের বোঝা শক্ত। কারণ অনিন্দিতার গল্পে এভাবেই আপাত–‌বৈপরীত্য খেলা করে। সুখের মধ্যে অসুখ, প্রেমের মাঝে অপ্রেম, সত্যের আধারে মিথ্যা, লৌকিকতার আবরণে অলৌকিকতা এবং বাস্তবতা, অবাস্তবতা, ভৌতিক, চরম বাস্তবতা নিয়ে সমাজের অসমাঞ্জস্যকে ময়নাতদন্তের মতো কেটে দিয়ে লেখিকা অসাধ্যসাধন করেছেন। অনিন্দিতা গল্পের মানবিকতার এই সূক্ষ্মতিসূক্ষ্ম অনুভূতিগুলি নিয়ে আসেন বলেই গল্প পড়ার পর অন্যতর এক ভাবনার স্তরে চলে যায়। এখানেই গল্পের জিত। ■

জনপ্রিয়

Back To Top