আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ক্ষমতার দিক থেকে অনেকটাই এগিয়ে তাঁরা। রয়েছে উন্নত এবং আধুনিক অস্ত্রও। তবুও ভারতীয় সেনাকে ভয় পাচ্ছে চীন।  কী সেই অস্ত্র? যার জন্য তাঁদের সামরিক বিশেষজ্ঞরা ভীত?‌‌ আসলে ভারত–চীন সীমান্তে পাহারারত জওয়ানদের চীনের মান্দেরিন ভাষা শেখার নির্দেশ দিয়েছিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। আর সেই নির্দেশেই এবার সিঁদুরে মেঘ দেখছে বেজিং। চীনের সমরাস্ত্র বিশেষজ্ঞদের মতে, এতে যুদ্ধের সময় অনেকটাই সুবিধে পাবে ভারত। কারণ চীনের সৈন্যরা যুদ্ধের সময় মান্দেরিন ভাষায় কথা বললেও ভারতীয় সেনারা সেটা সহজেই বুঝতে পারবে। চীনের সৈন্যদের কী পরিকল্পনা, তাও তাঁরা সহজে বুঝে যাবে। আর এখানেই বিপাকে পড়বে চীনের সেনাবাহিনী। আর তাই ভারতের এই সিদ্ধান্তে অনেকটাই চিন্তিত প্রতিবেশী দেশটি। কয়েকদিন আগেই সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছিল, মধ্যপ্রদেশের রাইসেন জেলার সাঁচী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৫ জন আইটিবিপি জওয়ান এবং এক অফিসারকে চীনা ভাষা শেখানো হচ্ছে। এক বছরের কোর্সে ভর্তি হয়েছেন তাঁরা। সীমান্তে ভাষা সমস্যা দূর করতেই এই অভিনব উদ্যোগ, জানিয়েছিল কেন্দ্র। কিন্তু এখন চীনের মনে হচ্ছে, কেবলমাত্র এই কারণেই যেকোনও পরিস্থিতিতে ভারতীয় সেনারা চীনের তুলনায় অনেকটাই এগিয়ে থাকবে।

জনপ্রিয়
আজকাল ব্লগ

Back To Top