আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌আগামী নভেম্বরেই মধ্যপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন। তাই প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দলই প্রচারের কাজে মনোযোগ দিয়েছে। ব্যতিক্রম নয় কংগ্রেসও। মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেসের প্রচার চলছে জোরকদমে। খোদ কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী সেই প্রচারের কাজে রয়েছেন। সারাদিন নির্বাচনের প্রচারের পর একটু ব্রেক নিয়ে রাহুল খেতে ঢুকেছিলেন আইসক্রিম। কিন্তু তাতেও বাধ সাধল মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। 
রাহুল গান্ধীর আইসক্রিম ভালো লাগায় তিনি মন্তব্য করেছিলেন, ‘‌কমল, আইসক্রিমটা ভাল’‌। আর কংগ্রেস সভাপতির এই মন্তব্যেই বেজায় চটেছেন শিবরাজ সিং। তিনি কংগ্রেস সুপ্রিমো সোনিয়া গান্ধীকে কটাক্ষ করে জানিয়েছেন, তাঁর ছেলে কী জানে না বড়দের সঙ্গে কীভাবে কথা বলতে হয়? ‌
ঘটনাটি হল মধ্যপ্রদেশে নির্বাচনের কাজ সারার পর রাহুল গান্ধী আইসক্রিম খেতে শহরের জনপ্রিয় দোকান ‘‌৫৬ দোকান’‌–এ ঢোকেন। সঙ্গে ছিলেন কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব কমল নাথ এবং জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। দোকানে ঢোকার পর রাহুল গান্ধী একটি ছোট ছেলেকে আইসক্রিম কিনে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়ে বলেন, ‘‌হ্যালো!‌ আইসক্রিম নেবে?‌’‌ ছোট ছেলেটি তাঁর থেকেই আইসক্রিম খেয়ে চলে যায়। এরপরই রাহুল তাঁর সঙ্গে থাকা কমল নাথের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘‌কমল, আইসক্রিম খুব ভালো খেতে, তুমিও খাও।’‌ মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং এতেই আপত্তি তুলেছেন। তিনি জানিয়েছেন, কংগ্রেসের শীর্ষ নেতাকে রাহুল গান্ধী নাম ধরে ডাকছেন। এর থেকেই তাঁর সংস্কার কেমন তা বোঝা যায়। 
শিবরাজ সিং বলেন, ‘‌কমল নাথ তাঁর বাবার (‌রাজীব গান্ধী)‌ সঙ্গেও কাজ করেছেন। ৭০–৭৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে এভাবে নাম ধরে ডাকা কি ভারতীয় সংস্কৃতি শেখায়?‌ শিবরাজ সিংয়ের ছেলে কার্তিকের নাম পানামা পেপারসে তোলায় রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন তিনি। যদিও রাহুল গান্ধী তাঁর সাফাইয়ে জানিয়েছেন যে, কার্তিক নয়, তিনি ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী রমান সিংয়ের ছেলের কথা পানামা পেপারসে দিয়েছেন। তবে এর সঙ্গে রাহুল গান্ধী এও জানান যে বিজেপি সরকারের আমলে এত দুর্নীতি হয়েছে এবং এতজনের নাম জড়িয়েছে যে তিনি বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছিলেন।  

 

 

 

 

রাহুল গান্ধী আইসক্রিম খাইয়ে দিচ্ছে ছোট শিশুকে। সঙ্গে রয়েছেন কমল নাথ।  


 

জনপ্রিয়

Back To Top