‌সংবাদ সংস্থা, লন্ডন: বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা প্রমাণ করে, করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ ছড়াচ্ছে ইউরোপে। ফ্রান্স, ইংল্যান্ড, অস্ট্রিয়া ও চেক প্রজাতন্ত্রে নতুন করে শুরু হয়েছে সংক্রমণ। ফলে, সব দেশই নতুন করে আরোপ করছে বিধিনিষেধ। গত পাঁচ দিন দৈনিক এক হাজারের ওপরে সংক্রমিত হয়েছেন চেক প্রজাতন্ত্রে। রবিবার সংক্রমিত হন ১৫৪১ জন। ১ কোটি ৭০ লক্ষ মানুষের এই দেশটি মার্চে করোনার প্রথম ঢেউ ভাল ভাবেই সামাল দিতে পেরেছিল। কিন্তু আগস্ট থেকে সংক্রমণ নতুন করে বাড়তে শুরু করে। এখনও পর্যন্ত চেক প্রজাতন্ত্রে করোনায় মারা গেছেন ৪৩৫ জন। ইউরোপের মধ্যে চেক প্রজাতন্ত্রেই প্রথম মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে, বন্ধ রাখা হয়েছে সব স্কুল ও ছোট ব্যবসা। লাগাম পরানো হয়েছে পর্যটনেও। 
রবিবার ফ্রান্সে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৭১৮৩ জন। পরিস্থিতি মোকাবিলায় পরীক্ষার সংখ্যা আরও বাড়াচ্ছে ফ্রান্স। হটস্পটগুলিতে নতুন করে কড়াকড়ি চালু হচ্ছে। করোনায় ফ্রান্সে মৃতের সংখ্যা ৩০,৯১৬। দ্বিতীয় দফা সংক্রমণের ঢেউ ছড়িয়েছে অস্ট্রিয়ায়। শুক্রবার নতুন করেন সংক্রমিত হন ৮৬৯ জন। ফলে, মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করার কথা ভাবছে সে দেশের সরকার। ব্রিটেনে রবিবার নতুন করে সংক্রমিত হন ৩৩৩০ জন। মৃত্যু হয় ৫ জনের। সামাজিক জমায়েত নিষিদ্ধ করতে নতুন আইন চালু করতে চলেছে সে দেশের সরকার। ‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top