দীপেন গুপ্ত,পুরুলিয়া: দাজিলিং  অশান্ত হতেই এই গরমের হাত থেকে রক্ষা পেতে পর্যটকদের নতুন ডেস্টিনেশন পুরুলিয়া জেলার পাহাড়–জঙ্গল ঘেরা গড়পঞ্চকোট। নিতুড়িয়া পঞ্চায়েত সমিতির  উদ্যোগে পঞ্চকোট পাহাড়ের কোলে তৈরি হয়েছে অরণ্যের দিন–রাত্রি নামে একটি ইকো টুরিজম্‌ কেন্দ্র। এই গরমে পুরুলিয়া, বাঁকুড়ার মতো জেলায় তাপমাত্রা যখন প্রায় ৪২–৪৫ ডিগ্রির মধ্যে, তখনও পঞ্চকোটের হিলটপে পর্যটকদের ভিড়। দু’‌–একদিন ছাড়া ছাড়া বৃষ্টিতে একেবারে চনমনে পরিবেশ। পর্যটকেরা বলছেন, ‘‌দাজিলিংয়ের পরিবেশ এখন উত্তপ্ত। ওদিকে না ঝুঁকে দু’‌–তিন দিনের জন্য এখানে এসে বেশ শান্ত পরিবেশে থাকাই যায়। একেবারে নিরিবিলি পরিবেশ।’‌ হিলটপে ঘুরতে আসা দক্ষিণ ২৪ পরগনার পর্যটক দেবযানী দে, সৌম্যনাথ দে–দের দাবি, আমাদের শিলিগুড়ি–দাজিলিং যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরিবেশ অশান্ত হতেই, সবকিছু বাতিল করে এখানে চলে এসেছি। এক আত্মীয়ের থেকে জায়গার নামটা শুনে ঘুরে গেলাম। শনিবার এসেছি দু’‌দিন থেকে সোমবার বাড়ি যাচ্ছি। সত্যি খুব আনন্দ পেলাম।  তাঁরা জানান, অযোধ্যা পাহাড়ে এর আগে এসেছিলাম। তার থেকেও সুন্দর এই এলাকা। তাছাড়া এখানকার পঞ্চায়েত সমিতি ও বেসরকারি উদ্যোগে তৈরি লজগুলিতে সমস্ত রকম সুযোগ–সুবিধা রয়েছে। হুগলির বাসিন্দা সৈকত রায়, দেবযানি রায় বলেছেন, ‘‌এত সুন্দর পরিবেশ, না এলে জানতে পারতাম না। কোনও রকম ঝামেলা ছাড়াই বেশ কয়েকটা দিন কাটিয়ে গেলাম। জানা গেছে, গত কয়েকদিনে প্রচুর পর্যটক এখানে এসেছেন। রঘুনাথপুর মহকুমা গড়পঞ্চকোটকে পর্যটনের মানচিত্রে জায়গা দিতে বহুমুখী পরিকল্পনাও নিয়েছে। রাস্তাঘাট , আলো–জলের ব্যবস্থা–সহ খাবারের সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আর তাই পর্যটকদের কাছে ক্রমে প্রিয় হয়ে উঠছে গড়পঞ্চকোট।

জনপ্রিয়

Back To Top