মিল্টন সেন, হুগলি: দীর্ঘ চার বছর ধরে নিঃশব্দে মানব কল্যাণে সামাজিক দায়িত্ব পালন করে চলেছে আদিত্য বিড়লা জনসেবা ট্রাস্ট। সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষকে সঙ্গে নিয়ে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও স্থায়ী জীবিকা— মূলত এই তিনটি বিষয়ের ওপরে গুরুত্ব দিয়ে জ্ঞানার্জন, পরিযোজনা, অনন্যা পরিযোজনা এবং কৌশল্যা পরিযোজনার কাজ চলেছে। মঙ্গলবার সংস্থার তরফে জনকল্যাণমূলক কাজকর্ম মানুষের সামনে তুলে ধরতে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 
রিষড়া জয়শ্রী টেক্সটাইলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলের কাছ থেকে সংস্থার তরফে গৃহীত দীর্ঘ পদক্ষেপ সম্পর্কিত মতামত গ্রহণ করার পাশপাশি নতুন প্রস্তাবও গ্রহণ করা হয়। সংস্থার তরফে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রঞ্জন ব্যানার্জি, অ্যাডমিন অফিসার রাকেশ পান্ডে–‌সহ আরও অনেকে। ছিলেন পুলিস কমিশনার পীযূষ পান্ডে, অতিরিক্ত পুলিস কমিশনার অতুল ভি, কামনাশিস সেন এবং রিষড়া পুরসভার চেয়ারম্যান বিজয়সাগর মিশ্র প্রমুখ। সংস্থার তরফে মূলত বারাসত ও রিষড়া পুরসভা এলাকায় বেশিরভাগ কাজ করা হয়ে থাকে। সংস্থার তরফে রঞ্জনবাবু বলেন, তাঁদের উদ্যোগে আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া দশম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্রছাত্রীদের বিনামূল্যে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই কাজের জন্যে বারাসত ও রিষড়ায় দুটি কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। পাশাপাশি বেকার যুবক–‌যুবতীদের প্রশিক্ষিত করে রোজগারে সক্ষম করে তোলার উদ্যোগও সফল হয়েছে। বর্তমানেও যুবক–‌যুবতীদের প্রশিক্ষণের কাজ চলছে। স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে যক্ষ্মা রোগীর চিকিৎসা থেকে পালস পোলিও সমস্ত কাজেই রিষড়া পুরসভাকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে গেছে সংস্থা। গত কয়েক বছরে যক্ষ্মা রোগ চিহ্নিত হওয়া প্রায় দেড়শো মানুষকে ইতিমধ্যেই চিকিৎসা করে স্বাভাবিক করে তোলা হয়েছে। এদিন অনুষ্ঠানে আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া ছাত্রছাত্রীদের ডব্লুবিসিএস বা ওই ধরনের প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার প্রশিক্ষণ এবং খেলাধুলোর বিষয় নিয়ে সংস্থাকে ভাবার পরামর্শ দেন অতিরিক্ত পুলিস কমিশনার কামনাশিস সেন।‌

রিষড়া জয়শ্রী টেক্সটাইলে বিড়লা জনসেবা ট্রাস্টের একটি অনুষ্ঠানে চন্দননগরের পুলিস কমিশনার পীযূষ পান্ডে। ছবি:‌ সৌগত রায়‌
 

জনপ্রিয়

Back To Top