আজকাল ওয়েবডেস্ক: মরেও নাকি শান্তিতে থাকতে দিচ্ছেন না প্যাট্রিক পিয়ার্স। বরং কেভিন ভিকের্সের প্রাণ ওষ্ঠাগত করে তুলেছেন তিনি। ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে স্বাধীনতা সংগ্রামে লড়েছিলেন আয়ার্ল্যান্ডের বিপ্লবী প্যাট্রিক। ১৯১৬ সালে তাঁকে প্রাণদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। আর কেভিন হলেন আয়ার্ল্যান্ডে কানাডার রাষ্ট্রদূত। আয়ার্ল্যান্ডে ডাবলিনের একটি বাড়িতে থাকেন কেভিন থাকেন। সেখানেই নাকি রোজ রাতে উপদ্রব করছে প্যাট্রিকের ভূত। কেভিন ফেসবুকে লিখেছেন, যে বাড়িতে তিনি রয়েছেন সেখানে ভূত আছে। এই ভূত এক জন বিপ্লবীর।  যার নাম প্যাট্রিক পিয়ার্স। কেভিন আরও জানিয়েছেন, প্রায় প্রতি রাতেই  বাড়ির ভিতরে কোনও এক জনের উপস্থিতি অনুভব করেছেন। তাকে দেখা যায় না। কিন্তু তার শ্বাসের শব্দ, চলাফেরার শব্দ শুনতে পান কেভিন। একবার টিভি দেখতে দেখতে হঠাৎ খাওয়ার ঘরের মাটিতে একটা ভারি শিকল পড়ার শব্দ পেয়ে ছুটে যান কেভিন। কিন্তু সেখানে কিছুই খুঁজে পাননি। দিনের বেলায়ও পরিচারক ওপরের তলায় উঠতে ভয় পান। কেভিন আরও জানিয়েছেন তিনি নিজে ভূতে বিশ্বাস করেন না। কিন্তু এগুলো সবই নাকি সত্যি।

জনপ্রিয়

Back To Top