অম্লানজ্যোতি ঘোষ,আলিপুরদুয়ার: পর্যটনের ক্ষেত্রে নজিরবিহীন ঘটনা। ডুয়ার্সে ভরা পর্যটন মরশুমেও কার্যত ১০০ শতাংশ বুকিং বাতিল। এমনটাই দাবি পর্যটন ব্যবসায়ীদের। ২০১৬ সালের হিসেব ধরলেও পর্যটকদের ডুয়ার্সের কোনও পর্যটন কেন্দ্রে থাকার জায়গা খুঁজে পেতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয়েছিল। তবে এবার সিকিম থেকে দার্জিলিং, শিলিগুড়ি থেকে আলিপুরদুয়ার, জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্রগুলি যেন খাঁ খাঁ করছে। পাহাড়ে অশান্তি, ডুয়ার্সের সঙ্গে ট্রেন যোগাযোগ কার্যত নেই কলকাতা–‌সহ গোটা দেশের। এ ছাড়াও বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্প নিয়েও সম্প্রতি গ্রিন ট্রাইবুনাল আদালত অবৈধ নির্মাণ ভাঙার নির্দেশ জারি করেছে। সব কিছু দেখেশুনে তাই পর্যটকেরা মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। তাঁদের একটি বড় অংশ প্রতিবেশী দেশ ভুটান, উত্তর–পূর্ব ভারতের মেঘালয়ে পাড়ি জমাচ্ছেন। মেঘালয়ের শিলং, চেরাপুঞ্জি, বড়াপানিতে ঠাসা বুকিং। একইভাবে ভুটানের থিম্পু–পারো–পুনাখাতেও পুজোর ঠিক আগে–‌পরে ভালই পর্যটক পৌঁছে যাবেন। আলিপুরদুয়ার জেলা ট্যুরিজম অ্যাসোসিয়েশনের কো–অর্ডিনেটর তমাল গোস্বামী জানান, আমরা আগামী বছর থেকে রাজ্য ও দেশের অন্যান্য জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্রে কাজ করব বলে ভাবছি। অধিকাংশ পর্যটক এবার পুজোর আগে–‌পরে বুকিং বাতিল করে দিয়েছেন। আমরা অর্থের বিনিময়ে আর অগ্রিম বুকিং করছি না। পরিস্থিতি রীতমতো সঙ্কটজনক। পর্যটন ব্যবসায়ী মহলে পরিচিত রাজ বসু শিলিগুড়ি থেকে জানান, বক্সার বুকিং বাতিলের ঘটনাটি গত ১০ বছরের মধ্যে নজিরবিহীন। দিন কয়েক আগে পূর্ব–পশ্চিম–দক্ষিণ সিকিম ঘুরে এসেছি। সেখানেও পরিস্থিতি ভাল নয়। এদিকে ডুয়ার্সে মালবাজার থেকে কুমারগ্রাম— এই এলাকার মূলত পাহাড়–নদী–জঙ্গল, চা–বাগানকেন্দ্রিক পরিচিত পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে গত বছরও ১ লক্ষের বেশি পর্যটক উত্তরবঙ্গের বাইরে থেকে এসেছিলেন। তবে এবার ১০ শতাংশ পর্যটক আসবেন কি না, জোরের সঙ্গে বলতে পারছেন না কেউই। এদিকে, ১৬ সেপ্টেম্বর ডুয়ার্সের বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্প, জলদাপাড়া, গরুমারা, চিলাপাতার মতো সব ক’টি অরণ্য খুলতে চলেছে। তিন মাস ধরে এই জঙ্গলগুলি বন্ধ। তবে এদিনও জয়ন্তী–চিলাপাতা–জলদাপাড়া থেকে খবর, নতুন করে কোনও বুকিং হয়নি গত এক মাসে। এমন–‌কি এও জানা গেছে, ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্যুরিজম ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের বনবাংলো ও লজগুলি থেকেও ইতিমধ্যে বেশ কিছু বুকিং বাতিল হয়ে গেছে। তমাল গোস্বামীর কথায়, শেষ ১৭ বছরে এমন ঘটনা ঘটেনি। এদিকে, বন্যা–‌পরবর্তীতে রেল যোগাযোগ অন্তত পুজোর আগে, অর্থাৎ সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে পুরোপুরি স্বাভাবিক হবে না বলে মনে করছেন রেল মহলের একাংশ। ট্রেন চালু হলেও তা আলিপুরদুয়ার পৌঁছতে কতক্ষণ লাগবে, তা পরিষ্কার নয়। ফলে, আশঙ্কা থেকেই গেছে। 

জনপ্রিয়

মুকুলকে নিতে আগ্রহী বিজেপি

বৃহস্পতিবার ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

অসীম ঘটকের শেষকৃত্য সম্পন্ন

বুধবার ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

থিম ‘‌কন্যাশ্রী’‌ বাঁধল গঙ্গা, টেমসকে  

বুধবার ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

বৃহস্পতিবার ২৪ আগষ্ট, ২০১৭

গণেশ বন্দনায় মেতেছে বলিউড

বুধবার ২৩ আগষ্ট, ২০১৭

ফুলে ঢাকা চিলির মরুভূমি

রবিবার ৬ আগষ্ট, ২০১৭

পুতিনের মেমেতে ছয়লাপ রাশিয়া

শনিবার ৮ জুলাই, ২০১৭

বঙ্গ সংস্কৃতি, আমেরিকা

শনিবার ১ জুলাই, ২০১৭

বঙ্গ সংস্কৃতি অস্ট্রেলিয়া

Back To Top