আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ টানা ভারী বৃষ্টিতে ওড়িশার কালাহান্ডি এবং রায়গড়া জেলায় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। কালাহান্ডির রামপুর ব্লকের চালবাড়ি গ্রামে সোমবার ধস নেমে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। নিচু এলাকাগুলি ডুবে গিয়েছে। নাগবলী এবং কল্যাণী নদী উপচে প্লাবিত দুই জেলার বিস্তীর্ণ অঞ্চল। নদী হয়ে বইছে ২৬ নম্বর জাতীয় সড়ক। রায়গড়ায় ভেঙে গিয়েছে সেতু। কয়েক হাজার মানুষ ফলে বানভাসি। দুর্গতদের উদ্ধারে সেনার সাহায্য চেয়েছে ওড়িশা সরকার। তবে সোমবার বৃষ্টি কম হওয়ায় উদ্ধারকাজে গতি এসেছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক।

তিনি জানান, দুর্গতদের জন্য বিভিন্ন জায়গায় ত্রাণ শিবির লঙ্গরখানা খোলা হয়েছে।
রায়গড়ায় যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে যাওয়ায় সেখানে আকাশ থেকে খাবার, ওষুধ ফেলা হচ্ছে। স্পেশাল রিলিফ কমিশন বা এসআরসি–র আধিকারিক বি পি শেঠি বলেন, এপর্যন্ত শুধু রায়গড়ার জলমগ্ন কল্যাণসিংপুর ব্লকের গ্রামগুলিতেই ৩,০০০ খাবারের প্যাকেট ফেলা হয়েছে। ত্রাণ বণ্টন চলছে কালাহান্ডিতেও। এনডিআরএফ, ওডিএআরএফ, পুলিস এবং দমকল একজোটে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে। সহযোগিতা করছে সিআরপিএফ–ও। সব থেকে ক্ষতিগ্রস্ত রায়গড়ার কল্যাণসিংপুর ব্লক। সোমবার থেকে নাগবলী এবং কল্যাণী নদীর জলস্তর নামতে শুরু করলেও, এখনও বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে বংশধারা নদী।

ওড়িশার বন্যা পরিস্থিতির জন্য সোমবার ইস্টকোস্ট রেল ৩টি ট্রেন বাতিল করেছে, একটি ঘুরিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং দুটির যাত্রাপথ ছোট করা হয়েছে। রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী পি কে জেনা বন্যাদুর্গতদের সুচিকিৎসার নির্দেশ দিয়েছেন স্বাস্থ্যকর্মীদের। বঙ্গোপসাগরের নিম্নচাপের ফলে কটক শহরেও ভারী বৃষ্টি চলছে। ইতিমধ্যেই সেখানে নিচু এলাকার বাসিন্দাদের ত্রাণ শিবির সরিয়ে আনা হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে ২৬০টি পাম্প। 

 

 

ত্রাণ বণ্টনের ব্যবস্থায় উদ্ধারকারী দল। ওড়িশা।          

জনপ্রিয়

বিদায় ২০০০, আসছে ২০০

বুধবার ২৬ জুলাই, ২০১৭

নীতীশের সিদ্ধান্তে অপমানিত শরদ 

বৃহস্পতিবার ২৭ জুলাই, ২০১৭

চীনে পরমাণু হামলা চালাতে পারে আমেরিকা

বৃহস্পতিবার ২৭ জুলাই, ২০১৭

Back To Top