আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ জম্মু–কাশ্মীরের সোপিয়ান জেলায় রাতভর সেনা–জঙ্গি সঙ্ঘর্ষে খতম ৩ জঙ্গি। শহিদ হয়েছেন ২ জন জওয়ান। গুলির আহত আরও ৩ জন। তাঁদের মধ্যে একজন ক্যাপ্টেন। রবিবার সকালে জঙ্গি–নিধনের খবর জানিয়েছেন জম্মু–কাশ্মীরের ডিজিপি এস পি বৈদ্য। নিহত জঙ্গিদের মধ্যে রয়েছে হিজবুল মুজাহিদিনের এক পুরনো অপারেশন কমান্ডার ইয়াসিন ইটু ওরফে গজনভি। বুরহান ওয়ানির মৃত্যুর পর থেকে কাশ্মীরে অশান্তি সৃষ্টির অন্যতম চাঁই। এর মধ্যেই রবিবার সকালে বান্দিপোরার হাজিন এলাকায় পুলিস ও সেনাবাহিনীকে লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে একদল। দু‌জন পুলিস জখম হয়েছেন। ওয়াহাব পারা মহল্লায় জঙ্গিদের উপস্থিতির খবর পেয়ে অভিযান শুরু করেছিল পুলিস ও নিরাপত্তা বাহিনী।
সোপিয়ানের জৈনপোরার আওনিরা গ্রামে একদল জঙ্গির লুকিয়ে থাকার খবর পেয়ে শনিবার রাতে জওয়ানরা গ্রাম ঘিরে ফেলতে গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা। জবাব দেয় সেনাবাহিনী। আজ সকালে সেনার আক্রমণ তীব্র হয়। মারা যায় তিন জঙ্গিই। গজনভি ছাড়া অন্য দু’‌জন হল ইরফান–উল হক শেখ এবং উমর মজিদ শেখ। ইরফান তথ্যপ্রযুক্তিতে পারঙ্গম। নেট দুনিয়ায় সন্ত্রাসবাদী প্রচার চালাচ্ছিল। উমর ছিল গজনভির দেহরক্ষী। গুলির লড়াইয়ে ৫ জন জওয়ান গুরুতর জখম হন। আহত জওয়ানদের সেখানকার সেনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
 চিকিৎসা চলাকালীন মৃত্যু হয়েছে ২ জওয়ানের। মৃত জওয়ানরা হলেন সেপাই ইলাইয়ারাজা পি এবং সেপাই গাওয়াই সুমেধ ওয়ামান। সেপাই ইলাইয়ারাজা তামিলনাড়ুর কান্দানি গ্রামের বাসিন্দা। তাঁর পরিবারে বাবা–মা এবং স্ত্রী রয়েছেন। সেপাই গাওয়াই সুমেধ ওয়ামান মহারাষ্ট্রের লোনাগ্রা গ্রামের বাসিন্দা। সোপিয়ানের গ্রামে সেনাবাহিনী অভিযান শুরু করলে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে স্থানীয় বাসিন্দারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সেনাবাহিনী ছর্‌রা গুলি চালায়। ছর্‌রার ঘায়ে জখম হয়েছেন ৭ জন।‌
এদিকে প্রতিক্ষামন্ত্রী অরুণ জেটলির দাবি, কাশ্মীরে জঙ্গিরা এখন বিরাট চাপে পড়ে গেছে। এক টিভি অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, এনআইএ–‌র তৎপরতায় জঙ্গিদের অর্থের জোগানে এবার টান পড়েছে। 

ইয়াসিন ইটু ওরফে গজনভি এবং উমর মজিদ শেখ।

Back To Top