আজকালের প্রতিবেদন: রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জানুয়ারি থেকে ১৫ শতাংশ মহার্ঘভাতা দেওয়ার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করল অর্থ দপ্তর। রাজ্য সরকারের অধীনে যে সমস্ত কর্মী দৈনিক ভাতা পান, সেই ভাতা ১ জানুয়ারি থেকে ৩২ টাকা করে বাড়বে। সরকারি কর্মী, শিক্ষক, শিক্ষাকর্মী এবং রাজ্য সরকারের অধীনস্থ অন্যান্য সংস্থার কর্মীরাও এই বর্ধিত মহার্ঘভাতা পাবেন। মঙ্গলবার অর্থদপ্তর থেকে মহার্ঘভাতা সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হল। প্রসঙ্গত,  ৭ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার নজরুল মঞ্চে পুজোর মুখে সরকারি কর্মীদের মহার্ঘভাতা নিয়ে সুখবর দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তিনি বলেছিলেন, সরকারি কর্মীদের আরও ১৫ শতাংশ মহার্ঘভাতা দেওয়া হবে। সরকার ধারদেনার বোঝা সামলেও এর ব্যবস্থা করেছে। এরজন্য অতিরিক্ত খরচ হবে ৪ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। কর্মীদের মহার্ঘভাতা দেওয়ার ফলে খরচ বেড়ে হতে চলেছে ৩২ হাজার ৪০০ কোটি টাকা। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, কর্মীদের সঙ্গে রয়েছেন তিনি। মহার্ঘভাতার যেটুকু বাকি আছে তা ২০১৯ সালের মধ্যে মিটিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হবে। তাঁর অভিযোগ, কেন্দ্র সরকার রাজ্যের পাওনা টাকা দিচ্ছে না। আগের সরকারের ঋণ মেটাতেও অনেক টাকা চলে যাচ্ছে। তা সত্ত্বেও সরকার কর্মীদের মহার্ঘভাতা দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে।
শুনানি আজ
রাজ্য সরকারের ষষ্ঠ বেতন কমিশনে কর্মী সংগঠনগুলির শেষ দিনের শুনানি আজ, বুধবার। সরকারি কর্মীদের সংগঠন ফেডারেশন–এর সচিবালয় শাখার ১০০ কর্মী এদিন শুনানিতে উপস্থিত থাকবেন। এদিন তঁারা কাজে অর্ধদিবস ছুটি নিয়ে যাবেন বলে জানা গেছে। প্রথম পর্যায়ের শুনানি এদিনই শেষ হয়ে যাচ্ছে বলে কমিশন সূত্রের খবর। ২৪ নভেম্বর কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তবে মনে করা হচ্ছে, ২০১৮ সালের শেষে কমিশন বেতন–‌সংক্রান্ত সুপারিশ সরকারের কাছে জমা দেবে। সে–‌ক্ষেত্রে, আরও এক বছর কমিশনের মেয়াদ বাড়বে।

জনপ্রিয়

Back To Top